Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নাসিরনগরে বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাভূক্তির দাবিতে মানববন্ধন

নাসিরনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২:৫১ পিএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে পূর্বের কমিটির তালিকাভূক্ত মুক্তিযোদ্ধাদের বর্তমান যাচাই বাছাই কমিটি কর্তৃক বাতিল হওয়ার প্রতিবাদে ও মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় নাম অন্তর্ভূক্তির দাবিতে বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধারা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে। এরপর তাঁরা উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে একটি আবেদন দেন। আজ রবিবার সকাল ১১টার দিকে বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।এতে উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার বঞ্চিত ১৭ জন মুক্তিযোদ্ধাসহ তাঁেদর স্বজনরা অংশ নেন।মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির দাবিকৃত আবদুল মোতালিব,আবদুল কবির,মীর মোশারফ হোসেন,কানু দেব ও মরহুম হারুনুর রশীদের ছেলে জিয়াউল হাসান প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। এসময় বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধারা বলেন বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাদ পড়া প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রণয়ণের লক্ষ্যে ২০১৩ সালে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ কার্যক্রম চালু করেন।সে অনুযায়ী বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধারা আবেদন করেন। পরে উপজেলা যাচাই বাছাই কমিটি বঞ্চিত মুক্তিযোদ্ধার তালিকাভূক্তি সুপারিশ পাঠায়। সুপারিশকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা পুনরায় যাচাই বাছাই করে ৮ জনের তালিকা প্রেরণের জন্য সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল ৩ সদস্য কমিটি গঠন করে। কিন্তু এ কমিটি গত ৪ ডিসেম্বর যাচাই বাছাইয়ের সভায় পূর্বের কমিটির তালিকাভূক্ত ১৭ জন মুক্তিযোদ্ধার তালিকা বাতিল করে দেন। তারা আরো বলেন এতদিনে যাচাই বাছাইকৃত তালিকার অনেক মুক্তিযোদ্ধা মৃত্যুবরণ করেছেন। তারা জীবদ্দশায় আর দেখে যেতে পারেননি।যারা জীবীত আছেন তারা যাতে তালিকাভূক্তি হয়েছে দেখে যেতে পারেন তার ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।
উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ও যাচাই বাছাই কমিটির সদস্য সচিব নাজমা আশরাফী বলেন জামুকার নির্দেশনা মোতাবেক আবেদনকারীগণ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে না পারায় তাঁদের অর্ন্তভূক্ত করা যায়নি। তাই শূণ্য তালিকা পাঠানো হয়েছে।

 



 

Show all comments
  • ahammad ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:৫১ পিএম says : 0
    জনাব, আপনারা আওয়ামীলীগে যোগ দিন। তহলে অতি তাড়তাড়ি মুক্তি যোদ্বার সনদ পেয়ে যাবেন। কারন আওয়ামীলীগের কাছে মুক্তিযোদ্বা বানানোর মেশিন আছে। এদিক দিয়ে রাজাকার ডুকলে অপরপাশ দিয়ে মুক্তিযোদ্বা বাহির হয়।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাভূক্তি
আরও পড়ুন