Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

চাহিদা বেড়েছে গরম কাপড়ের

কুষ্টিয়ায় শীতের তীব্রতা

এস এম আলী আহসান পান্না, কুষ্টিয়া থেকে | প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

শীত বাড়ার সাথে সাথে কুষ্টিয়ায় গরম কাপড়ের চাহিদা বেড়েছে। বেচাকেনায় জমে উঠেছে ফুটপাতের দোকানগুলো। নতুন কাপড়ের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় পুরনো কাপড় দোকানের দিকে ক্রেতারা ঝুঁকে পড়েছে। ফুটপাতের দোকানগুলি থেকে নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজন এসব কাপড় ক্রয় করছে।

জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে শীতে প্রকোপ বাড়তে শুরু করেছে। শীত নিবারণে প্রয়োজন গরম কাপড়-চোপড়। প্রতি বছর কুষ্টিয়া জেলায় শীতের প্রকোপ একটু বেশি হওয়ায় হিমশিম খেতে হয় গরীব পরিবারের। শীতে গরম পোশাক প্রয়োজন। তাই বেশি দামে নয়, কম দামেই গরম পোশাক কেনার দিকে মানুষ ঝুঁকছেন। শীত উপলক্ষে জেলার ৬টি উপজেলার হাট-বাজারগুলোতে শীতের পোশাক আমদানী ও বেচাকেনা শুরু হয়েছে। সবকিছুর দাম বৃদ্ধির সাথে সাথে বেড়েছে পোশাকের দামও। যে সকল মানুষ পেট পুরে দু’মুঠো ভাত খেতে পায় না, এ শীতে তাদের বাঁচা দায় হয়ে পড়েছে। তারপরও কাপড়-চোপড়ের অত্যধিক দাম। ফলে কোন রকমে শীত নিবারণের জন্য তারা কম মূলের কাপড় কেনার জন্য বাজারে ছুটছেন।

আগাম শীতেরভাব দেখেই দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম কাপড় হাট পোড়াদহের ব্যবসায়ীরা শীতের কাপড় ওঠাতে শুরু করেছে। বিক্রিও হচ্ছে ভালো। বেচাকেনায় জমে উঠেছে কাপড় হাট।
জেলার হাট-বাজারের গার্মেন্টস দোকানগুলিতে কাপড়ের দাম বেশি। তাই নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকেরা কম মূল্যের কাপড় কিনতে ভীড় জমাচ্ছে ফুটপাতের দোকানগুলিতে। দিন যতই যাচ্ছে ততই শীতের তীব্রতা বাড়ছে। শীত থেকে রেহাই পেতে বয়োবৃদ্ধ সকলেই কাপড় কিনছে।

শীতের কারণে ব্যাপক চাহিদা বেড়েছে গরম কাপড়ের। এ জন্য দোকানিরা কম মূল্যের কাপড়ের পসরা বসিয়েছে ফুটপাতে। কুষ্টিয়া শহরের পাবলিক লাইব্রেরির সামনে, ট্রাফিক মোড়ে, গার্লস স্কুলের সামনে বঙ্গবন্ধু সুপার মার্কেটের সামনে পুরনো কাপড়ের রমরমা ব্যবসা চলছে। সকাল থেকে অনেক রাত পর্যন্ত বিভিন্ন ধরনের কাপড় বিক্রি হচ্ছে। এসব কাপড় ব্যবসায়ীরা ঢাকা, চট্টগ্রাম থেকে আমদানী করে বিক্রি করছে। ব্যবসায়ী রনি জানায়, চট্টগ্রাম থেকে আমরা পুরনো কাপড় কিনে আনি। একটি গাইটে ৩৫০/৪০০টি কাপড় থাকে। যার দাম ৮/৯ হাজার টাকা। তবে কাপড়ের ধরনের উপর গাইটের দাম নির্ভর করে। এ বছর বেচাকেনা ভালোই হচ্ছে।
ফুটপাতের কম মুল্যের এসব দোকানগুলিতে বেচাকেনা বেশ জমে উঠেছে। একদিকে ক্রেতারা কম মূল্যে সহজে শীতের কাপড় পাচ্ছেন, অন্যদিকে বিক্রেতারাও লাভের মুখ দেখছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন