Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২২ জানুয়ারী ২০২০, ০৮ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

মুখোমুখি নূর ও রাব্বানী

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

দুর্নীতি ও আর্থিক অনিয়ম নিয়ে একে অপরের পদত্যাগ করার দাবি করে মুখোমুখি ডাকসু ভিপি নূরুল হক নূর ও জিএস গোলাম রাব্বানী। গতকাল রবিবার বেলা ১১টায় ডাকসু সভাকক্ষে ভিপির পদত্যাগ দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করে সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসু জিএস গোলাম রাব্বানী। এসময় ডাকসুতে ছাত্রলীগ প্যানেল থেকে নির্বাচিত অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে দুর্নীতির অভিযোগে ছাত্রলীগের পদ হারানোর পর ডাকসুর জিএস পদ থেকে রাব্বানীকে বহিষ্কার করতে ভিসির কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছিলো নূরুল হক নূর।
সম্প্রতি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়া নূরুল হক নূরের একটি একটি ফোনালাপ নিয়ে ‘অপকর্মের’ দায়ভার নিয়ে নুরকে পদত্যাগ করতে আহŸান জানিয়ে গোলাম রাব্বানী বলেন,‘আমরা ডাকসু পরিবার নূরের অপকর্মের দায়ভার নিতে রাজি নই। তিনি যদি পদত্যাগ না করেন তাহলে আমরা ডাকসুর সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসির কাছে তার বহিষ্কারের দাবি জানাবো।
সংবাদ সম্মেলনে লিখীত বক্তব্যে ডাকসু সদস্য রাকিবুল ইসলাম বলেন, ভিপির ‘টেন্ডারবাজি, তদবির বাণিজ্য ও অনৈতিক অর্থ লেনদেনে’র খবর আমাদের লজ্জিত করে। শিক্ষার্থীদের কল্যানে তার নামে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যে ৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করেছে তার এক পয়সাও ৯ মাসে ব্যয় না করে নূর শিক্ষার্থীদের বঞ্চিত করেছে, নিজের দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে গত মার্চে অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনে জিএস পদে গোলাম রাব্বানীর প্রার্থিতা নিশ্চিত করতে নিয়মবহির্ভূতভাবে এমফিলে ভর্তি নৈতিক স্থলন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে রাব্বানী বলেন, এটা নিয়ে ইতিমধ্যে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন হয়েছে, তদন্ত হয়েছে। আমি যে নিয়ম মেনেই ভর্তি হয়েছি, সেটা স্পষ্ট হয়েছে। এখানে আমার কোনো ব্যর্থতা বা দায়বদ্ধতা নেই। আর বিশ্ববিদ্যালয়ের যে নিয়ম আছে, তা আমার জানার কথা নয়।
গোলাম রাব্বানীকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নপ্রকল্প থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগের বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিন কথা বলতে রাজি হননি। তবে বিষয়টি বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন ঢাবি ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসু এজিএস সাদ্দাম হোসেন। তিনি বলেন, জাহাঙ্গীরনগরে যা ঘটেছে, তা একটি ছাত্রসংগঠনের অভ্যন্তরীণ বিষয়। সেটির আলোকে কিন্তু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে তিনি সংগঠন থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে গোলাম রাব্বানী বলেন, আমি ডাকসুর জিএস পদ ব্যবহার করে কোন কাজ করিনি। যদি আমার নামে ডাকসুর জিএস পদ ব্যবহার করে কোন অনৈতিক কাজ করার অভিযোগ আসে অবশ্যই আমি আমার জিএস পদ থেকে অব্যাহতি নিব বা দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করবো।
গত মঙ্গলবার থেকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে ডাকসু ভিপি নূরুল হকের সঙ্গে মুঠোফোনে দুজন ব্যক্তির কথোপকথনের অডিও প্রচারিত হয়। এতে তিনি দুর্নীতি করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়। তবে গত ৫ ডিসেম্বর সংবাদ সম্মেলন করে তদবিরের অভিযোগ নাকচ করেন নূর। নুর দাবি করেন তার ও তার সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করার জন্য মোবাইল কথোপকথনের খন্ডিতাংশের অডিও প্রচার করা হয়েছে। গোলাম রাব্বানীর সংবাদ সম্মেলন নিয়ে জানতে চাইলে নুর বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে আমি পদত্যাগ করবো। তবে ‘রাতের ভোটে’ নির্বাচিত ছাত্রলীগের কথায় পদত্যাগ করবো না।##



 

Show all comments
  • Billal Hossain ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৪৮ এএম says : 0
    গোলাম রাব্বানী সাহেব আপনার অপকর্ম তো প্রমাণিত তার দায় ভার কে নেবে
    Total Reply(0) Reply
  • Jahid Hasan ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৪৪ এএম says : 0
    Nur ke nea kotha bolar moto joggota Rabbanir nai
    Total Reply(0) Reply
  • Mahbub Rahman ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৪৬ এএম says : 0
    কোন ষড়যন্ত্রই রুরকে দমাতে পারবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Nazrul Islam ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৪৯ এএম says : 0
    গোলাম রাব্বানীর লজ্জা শরম বলে কিছু আছে নাকি সব খেয়ে ফেলেছে
    Total Reply(0) Reply
  • Nadia ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৪৯ এএম says : 0
    আশা করি সাধারণ ছাত্ররা নুরের পাশে থাকবে
    Total Reply(0) Reply
  • Iftekhar Azom ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৫০ এএম says : 0
    তারা কিছু প্রমাণ করতে পারুক আর না পারুক নুর কে প্রমাণ করতে হবে সে নির্দোষ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ