Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

এই বিল ভারতের মূল ভিত্তিকে ধ্বংস করবে : রাহুল গান্ধী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:৩৩ পিএম

সম্প্রতি ভারতের লোকসভায় পাস হওয়া নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল বিষয়ে বিজেপি সরকারের কঠোর সমালোচনা করেছেন কংগ্রেসের অন্যতম শীর্ষনেতা রাহুল গান্ধী। সরকারকে আক্রমণ করে এই কংগ্রেস নেতা জানান, এই বিল ভারতের মূল ভিত্তিকে ধ্বংস করবে। এক টুইটে তিনি এই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।
কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী জানান, এই বিল ভারতীয় সংবিধানের উপরে আক্রমণ। যারাই এটিকে সমর্থন করছে, তারা দেশের মূল ভিত্তিকে আক্রমণ ও ধ্বংস করতে চাইছে।’ কংগ্রেসের নতুন জোটসঙ্গী শিবসেনা এই বিল বিষয়ে বিজেপিকে সমর্থন করার পরে রাহুল এই প্রতিক্রিয়া জানান।
শিবসেনা তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা সরকারকে এই বিলের ব্যাপারে লোকসভায় সমর্থন করেছে জাতীয় স্বার্থে। গত ৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান থেকে নির্যাতিত হয়ে ভারতে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে ‘নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল-২০১৯’ অনুমোদন দেয় দেশটির কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা।
বিলটি ভারতের সংসদের দুইকক্ষে পাস হলে প্রতিবেশী এসব দেশের হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ ও পার্সী এই ৬টি সম্প্রদায়ের মানুষ ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবে।
মূলত বাংলাদেশ, আফগানিস্তান এবং পাকিস্তান থেকে ভারতে আসা অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে ১৯৫৫ সালের নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের এই উদ্যোগ। এতে বলা হয়, আগের অন্তত ১১ বছরের বদলে ৫ বছর ভারতে থাকলে ওইসব দেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে। বিশেষ করে ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে যারা ভারতে গিয়ে বসবাস শুরু করেছেন তাদের জন্য এই আইন।
শুরু থেকেই বিলটির তীব্র বিরোধিতা করে এসেছে কংগ্রেস, বামসহ বেশ কয়েকটি দল। তাদের দাবি, এই বিল ভারতের সংবিধানের মূল চরিত্র ধর্মনিরপেক্ষতায় আঘাত। এই বিল ভারতের মুসলিমদের রাষ্ট্রহীন করার জন্য করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছে অনেকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

২৩ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ