Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ২৬ জানুয়ারী ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬, ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হচ্ছে আরো দু’টি ব্র্যান্ড নিউ এটিআর ৭২-৬০০

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:২৪ পিএম

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বহরে নতুন বছরের শুরুতে দু’টি ব্র্যান্ডনিউ এটিআর ৭২-৬০০ এয়ারক্রাফট সংযোজিত হতে যাচ্ছে। দেশের সর্ববৃহৎ বেসরকারী বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা অভ্যন্তরীণ রুটে নেতৃত্বদানকারী এয়ারলাইন্স, যার বিমান বহরে বর্তমানে ১৬৪ আসনের ৪টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, চারটি এটিআর ৭২-৬০০ ও তিনটি ড্যাশ৮-কিউ৪০০ সহ মোট এগারোটি এয়ারক্রাফট রয়েছে। বর্তমানে সংযোজনের অপেক্ষায় থাকা নতুন দুটি এয়ারক্রাফট এটিআর ৭২-৬০০, যা ফ্রান্স থেকে সরাসরি ইউএস-বাংলার বিমান বহরে যুক্ত হবে।

আগামী জানুয়ারী মাসের তৃতীয় সপ্তাহে পর্যায়ক্রমে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের দ্বাদশ এয়ারক্রাফট (এটিআর ৭২-৬০০ এমএসএন ১৫৮৯) ও ত্রয়োদশ এয়ারক্রাফট (এটিআর ৭২-৬০০ এমএসএন ১৫৯০) বিমান বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে। নতুন এয়ারক্রাফট ইউএস-বাংলার বহরে যুক্ত হতে যাওয়ায় বর্তমানে পরিচালিত বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধি করারও পরিকল্পনা রয়েছে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স একমাত্র দেশীয় বিমান সংস্থা, যা ব্র্যান্ডনিউ এয়ারক্রাফট দিয়ে অভ্যন্তরীণ রুটে যাত্রীদের সেবা প্রদান করে যাচ্ছে।

২০১৪ সালের ১৭ জুলাই দু’টি ড্যাশ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ইউএস-বাংলা ঢাকা থেকে যশোরে উদ্বোধনী ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে। অভ্যন্তরীণ রুটে সবচেয়ে বেশী সংখ্যক যাত্রী পরিবহন করছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। বর্তমানে প্রতিদিন ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ১০টি, কক্সবাজারে ৬টি, সৈয়দপুরে ৫টি, যশোরে ৫টি, রাজশাহীতে ২টি, সিলেটে ২টি এবং বরিশালে ১টি ফ্লাইট নিয়মিত চলাচল করছে। বর্তমানে ইউএস-বাংলা আন্তর্জাতিক রুট সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়াংজু, মাস্কাট, দোহা চেন্নাই ও কলকাতায় ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

স্বাধীনতার পর ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স-ই একমাত্র দেশীয় বিমান সংস্থা যা, চীনের কোনো গন্তব্যে বা ভারতের চেন্নাই-এ সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

‘ফ্লাই ফাস্ট-ফ্লাই সেফ’ স্ল্গোান নিয়ে যাত্রা শুরু করা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স, আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধি এবং নতুন গন্তব্য ফ্লাইট পরিচালনার লক্ষ্য হিসেবে অধিক সংখ্যক উড়োজাহাজ দ্রুততম সময়ে বিমান বহরে যুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে।

ভবিষ্যত পরিকল্পনার অংশ হিসেবে, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স জেদ্দা, দাম্মাম, রিয়াদ, হংকং, দিল্লী, কলম্বো, মালে সহ বিভিন্ন রুটে ফ্লাইট চালানোর পরিকল্পনা করছে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স যাত্রা শুরুর পর থেকে অন-টাইম ফ্লাইট অপারেশন, আন্তর্জাতিক মানের কেবিন সার্ভিস, উন্নত মানের নিজস্ব ক্যাটারিং সার্ভিস, যা যাত্রী সাধারনের কাছে একটি নির্ভরযোগ্য এয়ারলাইন্স হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। ইউএস-বাংলা’র সঠিক সময়ে ফ্লাইট পরিচালনার রেকর্ড শতকরা ৯৮ দশমিক ৭ ভাগ।

দু’টি ব্র্যান্ডনিউ এটিআর ৭২-৬০০ বিমান বহরে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, বর্তমান বিশ্বে যাত্রীদের সঠিক সেবা প্রদান করার জন্য ব্র্যান্ডনিউ এয়ারক্রাফটের কোনো বিকল্প নেই। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স যাত্রীদের আরামদায়ক সেবাকে নিশ্চিত করার লক্ষ্যেই প্রতিনিয়ত নতুন নতুন এয়ারক্রাফট বহরে যুক্ত করে চলেছে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স-ই একমাত্র দেশীয় বিমান সংস্থা, যারা অভ্যন্তরীণ রুটে ব্র্যান্ডনিউ এয়ারক্রাফট দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। ইনশাল্লাহ নিকট ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক রুটেও ব্র্যান্ডনিউ এয়ারক্রাফট বহরে যুক্ত করার পরিকল্পনা করছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউএস-বাংলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ