Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ২৫ জানুয়ারী ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

হ-য-ব-র-ল ফটোসেশন!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

বিপিএলের সব দলের অধিনায়কের যৌথ ফটোসেশন। অনুষ্ঠানের নাম ছিল এমনই। কিন্তু অনেক বিলম্বে হওয়া এই আয়োজনে এক দলের অধিনায়ক দলের আরেকজনকে প্রক্সি দাঁড় করিয়ে চলে গেলেন, আরেক অধিনায়কের নেই খোঁজ। বাকিরা সবাই মিলে যে ছবি তুললেন তাতে ছিল না টুর্নামেন্টের ট্রফিও!
সন্ধ্যা ৫টা থেকে সাড়ে ৫টার মধ্যে মিরপুরের একাডেমি মাঠে অধিনায়ককের ফটোসেশনের সময় দেওয়া হয়েছিল। নির্ধারিত সময়ে সেখানে গিয়ে দেখা যায় হ-য-ব-র-ল অবস্থা। ঢাকা প্লাটুনের অধিনায়ক করা হয়েছে ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। অনুষ্ঠান শুরুর আগেই মুমিনুল হককে দায়িত্ব দিয়ে তিনি মাঠ ছেড়ে চলে যান।
অর্থাৎ টুর্নামেন্টের অধিনায়কদের ফটোসেশনে শুরুতেই নেই এক অধিনায়ক। বাকিদের মধ্যে খুলনা টাইগার্সের মুশফিকুর রহিম, কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের দাসুন শানাকা, সিলেট থাউন্ডার্সের মোসাদ্দেক হোসেন, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ শুরু থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন। পাঁচ অধিনায়ক ও এক প্রতিনিধি দাঁড়ালেন। ক্যামেরার সামনে পোজ দিলেন। খানিক পর কনফেত্তি উড়ল হালকা। এরপর? আরও দুই অধিনায়কের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। বিপিএল সমন্বয়ক সাইফুল আমিন মুঠোফোনে দলগুলোর ম্যানেজারদের ধরার চেষ্টা করলেন। রাজশাহী রয়্যালসের অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেল খানিক পরই অবশ্য এসে উপস্থিত। কিন্তু রংপুর রেঞ্জার্সের অধিনায়ক মোহাম্মদ নবি কোথায়? সাইফুল ফোনের অপরপাশে রংপুরের ম্যানেজার সাইদুল ইসলামের কাছ থেকে নবির ব্যাপারে নির্দিষ্ট কিছু জানা গেল না। পরে জানা গেল দুপুরে মিরপুরে সংবাদ সম্মেলন করে যাওয়া নবি নাকি ঢাকার যানজটে আটকে পড়েছেন। কিন্তু পূর্ব নির্ধারিত একটি আয়োজনে যানজটের কারণে একজন অনুপস্থিত থাকছেন, এমটা তো বিস্ময়কর বটেই!
ডায়াসে দাঁড়িয়ে থাকা অধিনায়করা বুঝতে পারছিলেন না কী করবেন। মুশফিকুর রহিম তো সংবাদকর্মীদের জিজ্ঞেস করেই ফেললেন, ট্রফি উন্মোচন হবে কিনা। সেই প্রশ্ন ছিল উপস্থিত আরও অনেকের। কিন্তু ট্রফির কোনো ব্যাপারই ছিল না। তাহলে এই ফটোসেশনের মানে কি? এটুকুর জন্য এত ঝামেলা করে সবাইকে আনার প্রয়াস কেন! ফটোসেশনে ছিলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি চেষ্টা করলেন ব্যাখ্যা করার, ‘অধিনায়কদের জানানো হয়েছিল। আজকে সব দলেরই প্র্যাকটিস ছিল। অনেক ক্ষেত্রেই আমাদের সীমাবদ্ধতা থাকে। একজন সময়মতো আসতে পারেননি। সেক্ষেত্রে সবার কথা ভেবে, আপনাদের কথাও ভেবে আমরা শুরু করে দিয়েছি।’ পরদিন খেলা, এই সন্ধ্যাবেলায় কেন এই আয়োজন। জিজ্ঞেস করতে তার উত্তর, ‘আসলে দিনের বেলা তো সবাইকে পাওয়াই যাচ্ছিল না। একে পাওয়া যায় তো ওকে পাওয়া যায় না।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিপিএল

১৮ জানুয়ারি, ২০২০
১৭ জানুয়ারি, ২০২০
১৫ জানুয়ারি, ২০২০
১৪ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন