Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২৯ জানুয়ারী ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৬, ০৩ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

মানবতা ও ইসলামের শত্রুদেরই উৎসাহিত করবে : এরদোগান

মুসলিম গণহত্যার সমর্থক হান্টকারের হাতে তুলে দেয়া হয় পুরস্কার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, পিটার হান্টকার হাতে নোবেল পুরস্কার তুলে দিলে তা শুধুমাত্র ইসলাম ও মানবতার শত্রুদেরই উৎসাহিত করবে। রাজধানী আঙ্কারার প্রেসিডেন্ট প্যালেসে এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। মঙ্গলবার এরদোগান বলেন, লাখ লাখ মুসলিমের হত্যাকারীর সমর্থক ও প্রশংসাকারী ব্যক্তির হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া লজ্জাজনক ও মানহানিকর। ২০১৯ সালে সাহিত্যে নোবেল জয়ী অস্ট্রিয়ান লেখক পিটার হান্টকার নোবেল পুরস্কার গ্রহণের দিন এরদোগান এই মন্তব্য করেন। গত রানে সুইডেনে তার হাতে নোবেল পুরস্কার তুলে দেয় নোবেল কমিটি। বিতর্কীত লেখক হান্টকা বসনিয়া ও কসভোয় মুসলিম গণহত্যার সমর্থক। নোবেল বিজয়ী হিসেবে তার নাম ঘোষণার পর থেকেই চলে আসছে প্রতিবাদ। প্রসঙ্গত, বসনিয়া ও কসভোয় মুসিলম গণহত্যার সমর্থন হান্টকার। মঙ্গলবার তার হাতে তুলে দেয়া হয় পুরস্কার। সেই অনুষ্ঠান বর্জন করেছে ইউরোপের মুসলিম দেশ কসভোও। তুরস্কও শুরু থেকে এর নিন্দা জানিয়ে আসছে। নোবেল কমিটির দুই সদস্য এর প্রতিবাদে পদত্যাগ করেছেন। এছাড়া একজন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। ১৯৯২-৯৫ সালের বসনিয়া যুদ্ধে মুসলিমদের ওপর চালানো গণহত্যার ম‚ল হোতা বলকানের কসাই খ্যাত স্লোবোডান মিলোসেভিকের সমর্থক হিসেবে পরিচিত এই হান্টকা। পুরস্কার জয়ী হিসেবে তার ঘোষণার পর থেকেই শুরু হয় প্রতিবাদ। বসনিয়ার গণহত্যা অস্বীকার ও সার্বদের সাফাই গাওয়া এই অস্ট্রিয় সাহিত্যিক তার নোবেল বক্তৃতায়ও এই বিতর্ক নিয়ে কোন মন্তব্য করেননি। ১৯৯৮-৯৯ সালে কসভোর স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ও দেশটিতে মুসলমানদের ওপর ব্যাপক গণহত্যা চালায় সার্বিয়া। হান্টকা সে সময়ও সার্বিয়ার পক্ষ নেন। কয়েক দিন আগে তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী টুইটারে লিখেছেন, পিটার হ্যান্ডকাকে ২০১৯ সালের নোবেল পুরস্কার দেয়ার তীব্র নিন্দা জানানই। যিনি বসনিয়ার গণহত্যাকে অস্বীকার করেছে এবং গণহত্যার অপরাধী স্লোবোডানমিলোসোভিককে সমর্থন করেছেন। আমাদের বসনিয়ার ভাইদের হত্যায় সমর্থন দিয়েছেন এই হান্টকা। তুরস্কের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিনও হান্টাকার হাতে পুরস্কার তুলে দেয়ার নিন্দা জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত কসভোর রাষ্ট্রদ‚ত ভ্লোরা সিটাকু নোবেল কমিটির এই সিদ্ধান্তকে অপমানকর, ভ্রান্ত ও লজ্জাজনক হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। ১৯৯৭ সালে প্রকাশিত হান্টাকার বই ‘আ জার্নি টুন দ্য রিভার্স : জাস্টিস ফর সার্বিয়া’ নামক বইতে গণহত্যার ঘটনা গোপন করা হয়েছে। হান্টকা বরাবরই সার্বিয়ান সাবেক নেতা স্লোবোডান মিলোসেভিকের ভক্ত হিসেবে পরিচিত। যুদ্ধপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক আদালতে অভিযুক্ত এই মিলোসেভিক বিচার চলাকালে ২০০৬ সালে মারা যান। জেলখানায় তাকে দেখতে গিয়েছিলেন হান্টকা। এছাড়া বিচার চলকালে তার পক্ষে প্রচারণাও চালান।আনাদোলু, রয়টার্স।



 

Show all comments
  • julkar hossain ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৮ এএম says : 0
    কখনই একজন মানবতাবিরোধী গনহত্যাকারিহাণ্টকার নোবেল পেতে পারে না , এবং বাতিল করাই শ্রেয়
    Total Reply(0) Reply
  • Alidur Rahaman ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:২৫ পিএম says : 0
    Western countries always against Islam.not a consider the humanity.i agree to respected Turkey president Recep Tayyip Erdogan sir right discuss.
    Total Reply(0) Reply
  • Abdur Rashid ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২:২১ পিএম says : 0
    Any controversial should not get novel prize.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এরদোগান


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ