Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ১৪ মাঘ ১৪২৬, ০২ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

তিনজন আটক, শরীরে আঘাতের চিহ্ন

রাজধানীতে পুঁতে রাখা চীনা নাগরিকের লাশ উদ্ধার

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৬ এএম

রাজধানীর বনানী এলাকার একটি ছয়তলা ভবনের পেছনের জায়গায় পুঁঁতে রাখা এক চীনের নাগরিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বনানীর এ-বøকের ২৩ নম্বর সড়কে এ ঘটনা ঘটে। চীনের ওই নাগরিকের নাম মি. গাও বলে প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে। তিনি বনানীর এ-বøকের ২৩ নম্বর সড়কের ৮২ নম্বর বাসায় ছয়তলায় (৬-বি নম্বর) ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকতেন। এ ঘটনায় ওই ভবনের তিন নিরাপত্তাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এই তিনজনকে থানায় নেয়া হয়েছে।
বনানী থানার ওসি নূরে আজম মিয়া জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই ভবনের তিন নিরাপত্তাকর্মীকে থানায় আনা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, চীনা ওই নাগরিক ভবনের ষষ্ঠ তলায় থাকতেন। ধারণা করা হচ্ছে তাকে গত মঙ্গলবার খুন করা হয়েছে। আমরা সার্বিক বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করছি। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া ওই বাড়ির সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। হত্যাকাÐের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও কারণ জানার চেষ্টা চলছে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বনানীর ছয় তলার একটি বাড়ির পাশের ফাঁকা জায়গায় একজনের লাশ থাকার খবর পাওয়া যায়। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে থানার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে লাশটি মাটি থেকে তোলা হয়। ছয়তলা বাড়িটির মালিক একজন আইনজীবী। মি. গাওয়ের বয়স ৪৭ বছর। তিনি ঢাকায় একাই থাকতেন। চীন থেকে মাঝেমধ্যে তার স্ত্রী-সন্তানেরা বেড়াতে আসতেন। গত ২০ দিন আগে মি. গাওয়ের স্ত্রী ও সন্তানেরা চীনে ফিরে গেছেন। সিআইডির ক্রাইম সিন ঘটনাস্থল ও ফ্ল্যাট থেকে আলামত সংগ্র্রহ করেছে। প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজনের ভাষ্য, ওই ভবনের দেয়াল ও সীমানাপ্রাচীরের মাঝের ফাঁকা জায়গায় লাশটি পুঁতে রাখা ছিল। তার মুখে রক্তের দাগ ছিল। পরনে ছিল ট্রাউজার। ওই বাসার ব্যবস্থাপক বাপ্পী সাংবাদিকদের বলেন, গত মঙ্গলবার বিকেলেও তার সঙ্গে গাওয়ের দেখা হয়েছে। তিনি এ বাসায় এক বছর ধরে ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ