Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

মসনবী শরীফ

মাওলানা জালাল উদ্দীন রূমী রহ. কাব্যানুবাদ : রূহুল আমীন খান | প্রকাশের সময় : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৮:৪২ পিএম

সওদাগর ও তোতার কাহিনী

১৯৮৯. নেই যরূরত তবু শাহের শেষ নাহি কর্মের
রোগ ব্যাধি হীন সুস্থজনের রোদন তাজ্জবের।

১৯৯০. এই কথাই আল-কুরানে পাক খোদা সোবহান
ফরমায়েছেন : ‘কুল্লা ইয়াওমিন হুয়া ফী শান’।

১৯৯১. সাধন ভজন যাও চালিয়ে এই রাহে বরহক
এই পথেই অটল অচল থাক মরণ তক।

১৯৯২. মৃত্যাবধি তার ধেয়ানে থাকলে মগন তবে
এক সময়ে দয়ার দিঠি তাহার নসীব হবে।

১৯৯৩. নারী পুরুষ যেই করে তাঁর সাধনা সন্ধান
মন জানালায় পাতা তাদের খোদার চোখ ও কান।

১৯৯৪. ক্ষান্ত কর এসব কথার আছে কী আর শেষ
বলো এবার তোতার কথা, হলো কী শেষ মেশ।

তোতাকে মৃত ভেবে খাঁচার বাইরে নিক্ষেপ এবং তোতার উড়ে যাওয়া

১৯৯৫. মৃত তোতায় অবশেষে ফেলল খাজা ছুড়ে
অমনি তোতা গাছের ডালে বসল গিয়ে উড়ে।
১৯৯৬. পাঙ্খা মেলে পঙ্খী এমন তীব্র বেগে যায়
সূর্য যথা প্রূর্ব গগনের আলোর ঘোড়া ধায়।

১৯৯৭. কান্ড দেখে তোতার খাজা অবাক একেবারে
রহস্য ভেদ এর কিছুই বুঝতে নাহি পারে।

১৯৯৮. সেই দিকেতে সবিস্ময়ে তাকিয়ে সে কয়, বলো
বলো তোতা রহস্য কী, কেমনে এমন হলো ?

১৯৯৯. কী বলিল কী শিখাল দূরদেশী ওই পাখি
যাহার বলে জ্বালালে আর আমায় দিলে ফাঁকি।

২০০০. বলল, আমায় শিখাল সে করে মরার ভান
বন্ধ কর মিষ্টি কথা, প্র্রেমাবেগের গান।

২০০১. এই বিপদে ফেলছে তোমায়, তোমার মধুস্বর
বাঁচতে হলে মরতে হবে এরূপ্র অতঃপর।

২০০২. বুঝাল সে, সকল ছেড়ে মরার সুরত ধর
বাঁচতে হলে আমার মু মরণ বরণ কর।

২০০৩. হলে দানা হলে পক্ষী তোমায় খুঁটে খুঁটে খাবে
মুকুল হলে ছিঁড়ে তোমায় বা’ছা নিয়ে যাবে।

২০০৪. লুকিয়ে ফেল দানা তোমার, নিজকে বানাও জাল
কুড়ি মুকুল পাতা বিহীন হও গো নেড়া ডাল।

২০০৫. যে জন নিজের রূপ্র মাধুরী দেয়গো উদম করে
চারিদিকের বিপদ আপদ তাকেই ঘিরে ধরে।

২০০৬. প্র্রতারণা ফাঁকি ক্রোধ হিংসা ও দ্বেষ যু
ঢেলে পড়ে শিরে তাহার কলসি-জলের মু।

২০০৭. অরাতিরা হিংসা দ্বেষে ছিঁড়ে ফেঁড়ে খায়
বন্ধুরাও নানান ভাবে উজাড় করে তায়।

২০০৮. বসন্ত যে হারায় ত্যাগি চাষাবাদের কাম
কী বুঝবে সে অমূল্য ওই ঋতুরাজের দাম !

২০০৯. দয়াময়ের দয়ার ছায়ায় শরণ নেয়া চাই
মোদের রূহের ওপরে তাঁর দয়ার সীমা নাই।

২০১০. লাভ করিতে পারলে খোদার শরণ সঠিক মু
অগ্নি জলও হইবে তোমার সোনায় পরিণত।

২০১১. সমুদ্র কি নূহ্্ ও মূসার হয়নি মদদগার ?
রুদ্র রূপে দুশমনে কি করেনি সংহার ?

২০১২. দুর্গ হয়ে যায়নি কি নারÑ খোদার খলীলের
বুক থেকে কি ধূ¤্র বাহির হয়নি নম্্রুদের ?

২০১৩. য়াহিয়া কে নেয় নি পাহাড় আপন বুকে পুড়ে ?
শত্রুদের তাড়িয়ে কি সে দেয়নি পাথর ছুড়ে ?

২০১৪. ঘাতকদিগের হামলা কালে বলল পাহাড় ডেকে
আমি দেব পানা তোমায় শত্রু-অসি থেকে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মসনবী শরীফ

১৫ মে, ২০২০
১ মে, ২০২০
১০ জানুয়ারি, ২০২০
৩ জানুয়ারি, ২০২০
২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯
১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
২৯ নভেম্বর, ২০১৯
২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৬ আগস্ট, ২০১৯
৫ জুলাই, ২০১৯
৩১ মে, ২০১৯
২৪ মে, ২০১৯
১০ মে, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ