Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ সফর ১৪৪২ হিজরী

ভারতের আইন সংখ্যালঘুদের দেশত্যাগে উৎসাহ দেবে

সংবাদ সম্মেলনে রাণা দাশগুপ্ত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

ভারতীয় লোকসভা ও রাজ্যসভায় গৃহীত নাগরিকত্ব সংশোধন বিলের কঠোর সমালোচনা করেছে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। উদ্বেগ প্রকাশ করে সংগঠনটি বলেছে, ভারতের এ ধরনের আইন বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের দেশছাড়া করতে উৎসাহ যোগাবে। বাংলাদেশকে এক ধর্মীয় রাষ্ট্রে পরিণত করবে। গতকাল সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পরিষদের পক্ষ থেকে এ উদ্বেগ জানানো হয়।

পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রাণা দাশগুপ্ত সংবাদ সন্মেলনে বলেন, প্রকৃত অর্থে, বিজেপির করা ভারতের নাগরিকত্ব বিল-২০১৯ আইনে পরিণত হলে বস্তুত একদিকে এদেশে তা অধিকতর নিরাপত্তার আশায় সংখ্যালঘুদের দেশত্যাগে উৎসাহিত করতে পারে, দেশের অভ্যন্তরে অসা¤প্রদায়িক গণতান্ত্রিক আন্দোলনে এদের অংশগ্রহণ নিরুৎসাহিত হতে পারে। অন্যদিকে ১৯৭৫-র বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের পর থেকে সংখ্যালঘুদের জীবন, পরিবার ও সম্পদের উপর আক্রমণ চালিয়ে যারা তাদের দেশত্যাগে বাধ্য করেছে, এ বিল আইনে পরিণত হলে তা তাদের সা¤প্রদায়িক নির্যাতন, নিপীড়ন, ভূমি দখল, ধর্মান্তরকরণ ইত্যাদি অব্যহত রেখে সংখ্যালঘুদের দেশছাড়া করার জন্যে এবং বাংলাদেশকে এক ধর্মীয় রাষ্ট্রে পরিণত করার তাদের রাজনৈতিক আকাঙ্খা বাস্তবায়নের জন্যে অধিকতর উৎসাহিত করবে।

লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, এ কথা অস্বীকারের উপায় নেই সংবিধানে ধর্মনিরপেক্ষতাকে বিলোপ করে পরবর্তীতে ইসলামকে রাষ্ট্র ধর্ম হিসেবে সংযোজনের মধ্য দিয়ে ধর্মের ভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ বাঙালি জাতিসত্ত্বাকে বিভাজিত করা হয়েছে এবং সা¤প্রদায়িকতাকে রাষ্ট্রীয়করণ করে তৃণমূলে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। সংখ্যালঘুদের দেশত্যাগ কম বেশি অব্যাহত আছে। নানান ক্ষেত্রে ধর্মীয় বৈষম্য এখনো বহুলাংশে বিদ্যমান। সা¤প্রদায়িক নির্যাতন নিপীড়নও অব্যাহত আছে। বহুত্ববাদী সমাজ থেকে বাংলাদেশ ক্রমশঃ দূরে সরে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ এ সব সমস্যার মৌল সমাধান বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক অসা¤প্রদায়িক রাজনৈতিক, সামাজিক আন্দোলনের মধ্যে নিহিত রয়েছে বলে মনে করে।
সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ড. নিমচন্দ্র ভেমিক। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কাজল দেবনাথ, বাসুদেব ধর, জে এল ভৌমিক, নির্মল রোজারিও, মঞ্জু ধর, মনীন্দ্র কুমার নাথ, অ্যাড. তাপস পাল, অ্যাড. কিশোর মন্ডল, রবীন বসু, অ্যাড. দিপংকর ঘোষ, পদ্মাবতী দেবী, চন্দন বিশ্বাস প্রমুখ।



 

Show all comments
  • Mokhlesur Rahman ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২১ এএম says : 0
    "Not inspire but force to leave "
    Total Reply(0) Reply
  • M Nasir M Nasir ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২১ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Nurul Amin ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
    শেষ জামানা ধীইইরে ধীরে আসতেছে আর তার প্রমাণও সবাই দেখতেছে তবে বুঝার ক্ষমতা গুটিকয়েক জনের ভাগ্য জুটবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mosahid Miah ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
    ওরা নাকি ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র? আমাদের দেশের কতিপয় কানাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো, ধর্মনিরপেক্ষতা কারে কয়!!
    Total Reply(0) Reply
  • Tanvir Hossain ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
    জনাব, বাংলাদেশে প্রায় ২ কোটি সনাতন ধর্মীয় মানুষ আছে আর সকল ক্রিয়ারই বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছে। বুঝে নিন কি বলছি...
    Total Reply(0) Reply
  • Shahriar Abdullah ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
    ভারত হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে নিজের পরিচয় জানান দিচ্ছে আর আমরা অসাম্প্রদায়িক চেতনার কথা বলে ৮৫% মুসলমানকে কুনো ব্যাঙের মতো ঘরের কোনে বসিয়ে রেখে ১৫% নিয়ে লাফাচ্ছি। যে ১৫% এখন ৮৫% এর নাকের ডগায় কলকাঠি নাড়ছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Sharuk ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    বাংলাদেশের উদ্বেগের তো কিছু দেখছিনা। বাংলাদেশের সংখ্যালঘুরা যদি ভারতে চলে যেতে চায় তাহলে যাক।অবশ্য আমার দেখা অনেক হিন্দু আছে যারা মরে গেলেও ভারতে যাবেনা।আর ভারতের মুসলিমদের নিয়ে আমাদের চিন্তা না করলেও চলবে। তারা জীবনেও তাদের দেশ ছাড়বে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Jashim Uddin ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    ভারতের যেইসব রাজ্যে মুসলিম সংখ্যা গরিষ্ঠ কিছুদিন পর তারা স্বাধীনতার আন্দোলন শুরু করবে
    Total Reply(0) Reply
  • Bikash Das Biman ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    ভারত পৃথিবীর সমস্ত হিন্দুদের জায়গা দিলে ও অন্য কোনো দেশের মাথা ব্যাথার কারণ নেই বলে মনে করি,বাংলাদেশ রোহিংঙ্গাদের জায়গা দেওয়ায় অন্য কোনো দেশ তথা বাংলাদেশের হিন্দুদের আপত্তি ছিল কি?
    Total Reply(0) Reply
  • Xion Mahmud ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
    কিসের দুঃশ্চিন্তা?? বাংলাদেশের হিন্দুরা তাদের ইচ্ছে হলেই দেশ পরিবর্তন করতে পারবে.. আর কোন মুসলিম ওই দেশের নাগরিকত্ব নিতেও যাবে না
    Total Reply(0) Reply
  • Nannu chowhan ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৮:৩৪ এএম says : 0
    Mr.rana dash guopto,apnara shodhu "uparjjon koren Bangladeshe kintu mone prane varot"eai chintata poriborton korun jeneo na janar van koren,Bangladesher manushra oshomprodaik shotorang apnader kotha bartai o kaje korme apnara eai oshomprodaik manushgulike shomprodaik hana hanir vitor thele debenna.....
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ