Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৮ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

মোহামেডানের গ্রুপে চার দল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। আগামী বুধবার থেকে ফেডারেশন কাপ দিয়ে শুরু হচ্ছে ঘরোয়া ফুটবলের নতুন মৌসুম। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ব্যবস্থাপনায় ও টিভিএস’র পৃষ্ঠপোষকতায় এবারের ফেডারেশন কাপে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ১৩টি ক্লাব অংশ নেবে। মৌসুম সূচক টুর্নামেন্টে টিভিএস ফেডারেশন কাপকে সামনে রেখে গতকাল বিকেলে বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত হলো লোগো উন্মোচন ও ড্র অনুষ্ঠান। ড্র অনুযায়ী টুর্নামেন্টের ‘এ’ গ্রুপে পড়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী লিমিটেড, আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও প্রিমিয়ার লিগের নতুন দল বাংলাদেশ পুলিশ ক্লাব। ‘বি’ গ্রুপে জায়গা হয়েছে বসুন্ধরা কিংস, চট্টগ্রাম আবাহনী ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাবের। ‘সি’ গ্রুপে আছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, শেখ জামাল ধানমন্ডি ও রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি। এবং ‘ডি’ গ্রুপের দলগুলো হলো- শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, মোহামেডান স্পোর্টিং ও প্রিমিয়ারের আরেক নতুন দল উত্তর বারিধারা ক্লাব।

টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনীর কোয়ার্টার ফাইনালের পথ অনেকটাই পরিষ্কার। কারণ গ্রুপের শীর্ষ দুই দল খেলবে শেষ আটে। অপেক্ষাকৃত সহজ প্রতিপক্ষ পুলিশ ও আরামবাগকে পাওয়ায় আবাহনীর জন্য ‘এ’ গ্রুপ পর্ব টপকানো কঠিন হবেনা বলেই ভাবছেন দলটির কর্তারা। তবে পুলিশও লক্ষ্য শেষ আট। এ প্রসঙ্গে দলের ম্যানজোর শেখ মো: মারুফ হাসান বলেন, ‘নতুন মৌসুমকে সামনে রেখে আমরা শক্তিশালী দলই গড়েছি। অনুশীলন হয়েছে যথেষ্ট। ফেডারেশন কাপে ভালো কিছু করে দেখানোই আমাদের লক্ষ্য। অবশ্যই আমরা গ্রুপ পর্ব টপকাতে চাই।’ বিপিএলের নতুন চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসও নিজেদের গ্রুপে সহজ প্রতিপক্ষ পেয়ে অপেক্ষায় আছে কোয়ার্টারে পা রাখার। ‘বি’ গ্রুপে তাদের দুই প্রতিপক্ষ চট্টগ্রাম আবাহনৗ ও ব্রাদার্স ইউনিয়নের মধ্যেই দ্বিতীয় শীর্ষ দলের লড়াইটা হবে। সাইফ স্পোর্টিং ও শেখ জামাল ‘সি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ঢাকা আবাহনীকে কোয়ার্টারে এড়ানোর চেষ্টা করবে। তবে এই গ্রুপে চমক দেখাতে পারে জায়ান্ট কিলার খ্যাত রহমতগঞ্জ।

ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব চার দলের ‘ডি’ গ্রুপে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে শেখ রাসেল, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও উত্তর বারিধারাকে। এই গ্রুপে শেখ রাসেল অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী হওয়ায় তাদের শেষ আটের পথ অনেকটাই পরিষ্কার। কিন্তু গ্রুপের দ্বিতীয় সেরা কে হবে তা বলা মুশকিল। ক্যাসিনো ঝড়ে বিধ্বস্ত মুক্তিযোদ্ধা ও মোহামেডান এবার দল গড়তে হিমশিম খেলেও শক্তির বিবেচনায় সাদাকালোরা একেবারে খারাপ নয়। তাই উত্তর বারিধারা ও মুক্তিযোদ্ধাকে পেছনে ফেলা কঠিন কিছু নয় মোহামেডানের জন্য। তবে ফেডারেশন কাপকে খুব একটা গুরুত্ব দিচ্ছেন না দলটির বৃটিশ কোচ শন লী, ‘এটা বিপিএলের আগে প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্ট। তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছি আমরা। এটা ভালো দিক। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগুতে চাই।’


ফেডারেশন কাপের কোন গ্রুপে কারা
‘এ’ গ্রুপ : ঢাকা আবাহনী লিমিটেড, আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও বাংলাদেশ পুলিশ ক্লাব

‘বি’ গ্রুপ : বসুন্ধরা কিংস, চট্টগ্রাম আবাহনী ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন

‘সি’ গ্রুপ : সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি

‘ডি’ গ্রুপ : শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও উত্তর বারিধারা ক্লাব

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন