Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৪ মাঘ ১৪২৬, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

ভারতে এনআরসি আতঙ্ক তুঙ্গে, সোমবার থেকে ৩দিন পথে নামবে মমতা

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:২৫ পিএম

ভারত জুড়ে এনআরসি আতঙ্ক তুঙ্গে। এনআরসি’র বিরুদ্ধে বাদ প্রতিবাদও হচ্ছে জোরালো। বাংলাদেশ সীমান্তে জড়ো হচ্ছে বাংলাভাষীরা। ওপারের বিভিন্ন সূত্রে এ খবর পাওয়া গেছে। 

কলিকাতার দৈনিক বর্তমান খবর দিয়েছে, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) সংসদে পাশ হওয়ার পর এখন তা নাগরিকত্ব আইন। এই আইন এবং জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) এ রাজ্যে কোনওভাবেই কার্যকর হবে না, কাউকে তাড়াতেও দেব না। ফের দ্ব্যর্থহীন ভাবে এই ঘোষণার সঙ্গেই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিলেন, তিনি নিজে এবার পথে নামছেন কেন্দ্রীয় সরকারের ওই দুই নীতির প্রতিবাদে। আগামী সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত শহর এবং লাগোয়া হাওড়া থেকে শুরু হওয়া তিনটি প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নেবেন মুখ্যমন্ত্রী। নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরুদ্ধে তাঁর লাগাতার আন্দোলন যে গণতান্ত্রিক পথেই থাকবে, সেই বার্তাও দিয়েছেন মমতা। নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসি নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করে তিনি বলেছেন, কাউকে যেতে হবে না, যেতে দেব না। বিতাড়িত হওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মমতা বলেন, ধর্মের ভিত্তিতে দেশকে এভাবে ভাগ করা যায় না। গোটা বিশ্বের সামনে ভারতবর্ষের সম্মান নষ্ট হচ্ছে। এটা লজ্জার! ক্যাব আইনে পরিণত হওয়ার জেরে ইতিমধ্যে বাংলাদেশের দুই মন্ত্রী সফর বাতিল করেছেন। জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে পিছিয়ে দিয়েছেন ভারতযাত্রা। মুখ্যমন্ত্রীর কটাক্ষ, নিজেদের নির্বাচনী ইস্তাহারকে বাস্তবায়িত করতে বিভাজনের পথ নিয়েছে বিজেপি। বিজেপিতে না গেলে জেলে! ওরা (বিজেপি) যেন নতুন মডেলের ওয়াশিং মেশিন। গেলেই সাফ। আসলে ওরা বাংলার পাপ, দেশের অভিশাপ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত

১৮ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন