Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ২৬ জানুয়ারী ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬, ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

মেয়র ও ওসির বিরোধ

ভূঞাপুরে বাড়ছে জনদুর্ভোগ

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পৌর এলাকার একটি রাস্তা সম্প্রসারণ ও ড্রেন নির্মাণকে কেন্দ্র করে পৌর মেয়র ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বিরোধ ব্যক্তি পর্যায়ে পৌছার অভিযোগ উঠেছে। আর এ বিরোধে স্থবির হয়ে পড়েছে উন্নয়নমূলক কাজ। বাড়ছে জনদুর্ভোগ।
গত ১২ ডিসেম্বর ভূঞাপুর পৌর মেয়রের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মাসুদুল হক মাসুদ। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড ও ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজ মোড়ে যানজট নিত্যদিনের ঘটনা। আর বৃষ্টি হলেই সৃষ্টি হয় পানিবদ্ধতা। যানজট ও পানিবদ্ধতা থেকে পৌরবাসীকে মুক্তি দিতে সকল নিয়ম মেনে ফসলআন্দি মেধা বিকাশ থেকে ভূঞাপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ও সোনালী ব্যাংক হয়ে ঘাটান্দি নতুন পাড়া পর্যন্ত ৪৪০ মিটার লম্বা সরু রাস্তাটি সম্প্রসারণ ও ৬৩০ মিটার ড্রেন নির্মাণের টেন্ডার আহবান করা হয়। ঠিকাদার ৪০০ মিটার রাস্তার নির্মাণ কাজ শেষ করেছে।
ভূঞাপুর কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের দক্ষিণ পাশের জমির মালিক রাস্তা সম্প্রসারণে বাঁধা প্রদান করেন। তিনি মহামান্য হাইকোর্টে রাস্তা সম্প্রসারণের বিরুদ্ধে রিট পিটিশন করলে নিম্ন আদালতে যাওয়ার কথা বলে তা খারিজ করে দেন। পরে জমির মালিক বিজ্ঞ নিম্ন আদালতে স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলাটি শুনানীর পর্যায়ে রয়েছে। মেয়র বলেন, আদালত কাজ বন্ধের কোন আদেশ প্রদান করেননি। ঠিকাদার রাস্তার কাজ করতে গেলে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ অজ্ঞাত কারণে বাঁধা প্রদান করেন। তিনি অনেক মানুষের সামনে আমাকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমন করে কথা বলেন। এক পর্যায়ে তিনি বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে কিভাবে মেয়র নির্বাচিত হন তা দেখে নেব।’ একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তার এমন হুমকিতে আমার ভাবমূর্তি দারুনভাবে ক্ষুন্ন হয়েছে। আমি রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে হেয় হয়েছি। রাস্তা সম্প্রসারণ ও ড্রেন নির্মাণ জনস্বার্থে করা হচ্ছে। আমার ব্যক্তিগতস্বার্থে নয়।
এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, ‘রাস্তা নির্মাণের ব্যাপারে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত নিম্ন আদালতের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। মামলা চলাকালে রাস্তার কাজ করার সুযোগ নেই। ব্যক্তিগত আক্রমনের ব্যাপারে বলেন, জনগন ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করবেন। ভাল কাজ করলে জনগন ভোট দিবেন। এব্যাপারে আমার কোন ভুমিকা নেই।’ হুমকির বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন