Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের নাজিরপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৩

প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নাজিরপুর (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা

পিরোজপুরের নাজিরপুরে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৩ জন গুরুতর জখম প্রাপ্ত হয়ে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় আহত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পেয়ারা বেগম বাদী হয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গ্রহণ না করে উল্টো হামলাকারীদের দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে একটি মামলা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের ওই মামলায় গ্রেফতার করেছে বলে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেছে। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টার দিকে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে আহতদের পুলিশ প্রহরায় হাতে হ্যান্ডকাপ পরিহিত অবস্থায় চিকিৎসাধীন দেখা গেছে। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পেনাখালী গ্রামের ছালাম দাড়িয়ার সাথে একই গ্রামের বেলায়েত দাড়িয়ার জমি-জমা নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধসহ মামলা-মোকদ্দমা চলে আসছে। এ ঘটনার জের ধরে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে ছালাম দাড়িয়ার কলেজ পড়–য়া ছেলে আলাউদ্দিন, জসিম ও স্ত্রী পেয়ারা বেগম, একই গ্রামের আতিক দাড়িয়ার বাড়ীর সামনে রাস্তায় পেয়ে মৃত বেলায়েত দাড়িয়ার ছেলে রফিকুল দাড়িয়া, শাহিদুল দাড়িয়া, মৃত গঞ্জের আলী দাড়িয়ার ছেলে ফরিদ দাড়িয়া, ফরিদ দাড়িয়ার ছেলে মিজান দাড়িয়া তাহাদের সহযোগী সন্ত্রাসীদের নিয়ে তাদের পথরোধ করে এলোপাতাড়ীভাবে কুপিয়ে জখম করে এবং তাদের নিকট থাকা নগদ ৪০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় ছালাম দাড়িয়ার স্ত্রী পেয়ারা বেগম বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও পুলিশ অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করেনি। পুলিশ হেফাজতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আলাউদ্দিন দাড়িয়া বলেন, আমি টুঙ্গিপাড়া সরকারি শেখ মুজিবর রহমান কলেজে লেখাপড়া করি এবং কলেজ ছাত্রলীগের রাজনীতি করি। আমাদের উপর হামলাকারীরা সরাসরি জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত। পুলিশ আমাদের মামলা না নিয়ে জামায়াত নেতার দেয়া মিথ্যা অভিযোগে মামলা নিয়ে আমাকেসহ আমার মা ও ছোট ভাই জসিমকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গ্রেফতার করেছে এবং চিকিৎসাধীন থাকাকালেও হাতে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে রেখেছে। নাজিরপুর থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহিম জানান, মামলার এজাহার নামীয় আসামী হওয়ায় সিনিয়র অফিসারদের নির্দেশেই তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন