Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

‘কখনো নম্বর ওয়ান হতে খেলি না’

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:২২ এএম

 ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি) ছাড়তে কম চেষ্টা করেননি। ফিরে যেতে চেয়েছিলেন আগের ক্লাব বার্সেলোনায়। আলোচনা ব্যর্থ হওয়ায় তার সব চেষ্টাই হয়েছে ব্যর্থ। তবে এখন সুর বদলেছেন এই ফরোয়ার্ড। ফ্রান্সে থেকে যেতে হলেও খুশি এই ফরোয়ার্ড। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, তিনি ফুটবল খেলেন আনন্দের জন্য, কখনো নামম্বার ওয়ান হওয়ার জন্য খেলেন না।

গত গ্রীষ্মে নেইমারের বার্সা প্রত্যাবর্তনের সব স্বপ্ন মিশে যায় ধুলোয়। দল বদলের উইন্ডোতে তাকে নিয়ে নাটক কম হয়নি। শেষ পর্যন্ত পিএসজিতেই থিতু হতে হয় তাকে। নেইমার অবশ্য ফ্রান্স ফুটবলকে জানিয়েছেন এখন পিএসজিতেই খুব বেশি মনোযোগী তিনি, ‘আশা করছি পিএসজি আমাকে খুব ভালো করেই বোঝে।’

আগে যাই হোক এখন নেইমার শতভাগ দিতে চান পিএসজিকেই, ‘গত বছর অনেক কিছু বলেছি। এখন আমি পিএসজির খেলোয়াড়, ক্লাবটির জন্য আমি শতভাগ দেবো। পিএসজির সাফল্যের জন্য পারলে পিচে জীবনটাই দিয়ে দেবো।’ আবার স্পেনে যেতে চান কিনা এমন প্রশ্নে একটু বিরক্ত হয়ে জবাব দিয়েছেন ব্রাজিলীয় তারকা, ‘আমি কেন চলে যেতে চাইবো? চুক্তিতে আমার এখনও দুই বছর বাকি। আর দলটিও আরও উন্নতি করছে।’ দল বদলে হওয়া নাটক নিয়ে তার মন্তব্য, ‘গত গ্রীষ্মে কী হয়েছে এটা সবাই জানে। সবাই জানে আমি কী চেয়েছিলাম, ক্লাব কী চেয়েছিল। আর সবাই কী চেয়েছিল।’

ইনজুরি আক্রান্ত হওয়ার পর পর পিএসজি ছাড়তে চেয়ে কাউকে কষ্ট দিতে চাননি নেইমার। ব্রাজিলীয় তারকা তার অবস্থান ব্যাখ্যা করলেন সেই ঘটনা প্রসঙ্গে, ‘আমি আসলে কাউকে কষ্ট দিতে চাইনি। আমি প্যারিসেই খুশি। যখন ফুটবল খেলি তখন আরও বেশি খুশি থাকি।’ নেইমার আরও জানালেন তার জীবনের প্রতিটি মুহূর্তে আছে শুধু ফুটবল, ‘জীবনের প্রতিটি মুহূর্তে ফুটবল আমার মনে থাকে সব সময়। এ বিষয়টাই আমার জীবনে সুখ এনে দেয়। কখনও নম্বর ওয়ান হতে খেলি না। তবে এই ইনজুরি আমাকে মেরে ফেলে।’

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নেইমার

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন