Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

পাবনার ঈশ্বরদীতে চলন্ত বাস থেকে যাত্রীকে ফেলে হত্যার অভিযোগ

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:৪১ পিএম

পাবনার ঈশ্বরদীতে ভাড়া নিয়ে বাকবিতন্ডার জের ধরে চলন্ত গাড়ি থেকে ফেলে এক যাত্রীকে চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার ,১৯ ডিসেম্বর রাত ৮টার দিকে পাকশী লালন শাহ সেতুর সংলগ্ন গোলচত্বর এলাকায় সনি পরিবহনের একটি বাসে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে ।
নিহতের নাম সুমন (৪০), তিনি উপজেলার পাকশী ইউনিয়নের ঝাউতলা এলাকার মৃত মজিবর রহমানের পুত্র।
নিহতের চাচাতো ভাই লিটন জানান, তিনি ব্যক্তিগত কাজে মেহেরপুরের গাংনী যান। বৃহস্পতিবার গাংনী থেকে সুমন সনি বাসযোগে বাসায় ফিরছিলেন। পথে সুমনের সঙ্গে ভাড়া নিয়ে পরিবহনের সুপারভাইজারের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে বাসের ভেতরেই সুমনকে মারধর করে পরিবহনের সহকারীরা। এ ঘটনা সুমন মোবাইল ফোনে তার স্বজনদের অবহিত করেন। এরই মধ্যে গাড়িটি লালন শাহ সেতুর কাছে এসে পৌঁছে।
তিনি আরও জানান, এ সময় চালকের সহকারীরা তাকে নামতে বাধা দেন এবং সুমনকে নিয়েই গাড়িটি চলতে শুরু করে। এ সময় তিনি উচ্চস্বরে কথা বললে গাড়ির গতি কমিয়ে তাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। এতে ওই বাসের নিচে চাপা পরে সুমন। পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। রামেক নেওয়ার পথে তিনি মৃত্যু বরণ করেন।
পাকশী হাইওয়ে পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট আরিফুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলের পাশের ভবনে থাকা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বাসটি শনাক্ত করা হয়েছে। চালক ও তার সহকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হত্যার অভিযোগ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ