Inqilab Logo

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

নেপালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় দফায় ত্রাণ প্রেরণ

প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা ঃ নেপালে ভয়াবহ ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ত্রাণ সহায়তার অংশ হিসেবে দ্বিতীয় দফায় আরও ১০ হাজার মে. টন চাল পাঠানো শুরু হয়েছে। শনিবার পঞ্চগড় জেলা খাদ্য বিভাগের গুদামের আওতায় সদর খাদ্য গুদাম চত্বরে জেলা প্রশাসক অমল কৃষ্ণ ম-ল ত্রাণ পৌঁছানো কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। প্রথম দিন বাংলাদেশ থেকে ছেড়ে যাওয়া ১০টি ট্রাকে ২৫০ মে. টন চাল বাংলাবান্ধা-ফুলবাড়ি স্থলবন্দর দিয়ে সন্ধ্যা নাগাদ নেপালের কাঁকড়ভিটা সীমান্তে পৌঁছানোর কথা রয়েছে। ত্রাণ পাঠানো কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে পঞ্চগড়ের পুলিশ সুপার মো. গিয়াস উদ্দীন আহমদ, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক আনিসুর রহমান, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. আব্দুল কাদের, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. রেজাউল মোস্তফা, সদর খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাদেক সারোয়ার, পঞ্চগড় সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রেজাউল করিম রেজা, জেলা চালকল মালিক সমিতির সভাপতি আমিরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৫ এপ্রিল নেপালে ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ২০ হাজার মে. টন চাল ত্রাণ সহায়তার ঘোষণা দেন। ঘোষণার পর গত বছরের মে মাসে প্রথদফায় ১০ হাজার মে. টন চাল পাঠানো হয়। বাকি ১০ হাজার মে. টন চালের মধ্যে শনিবার ২৫০ মে. টন চাল পাঠানো হয়। জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. আব্দুল কাদের বলেন, ২য় দফায় ১০ হাজার মে. টন চালের মধ্যে প্রথম দিন ২৫০ মে. টন (১০ ট্রাক) পাঠানো হলো। এরপর পর্যায়ক্রমে পঞ্চগড় খাদ্য গুদাম থেকে সাড়ে ৪ হাজার মে. টন চাল পাঠানো হবে। বাকি সাড়ে ৫ হাজার মে. টন ত্রাণের চাল দিনাজপুর সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে পাঠানোর কথা রয়েছে বলে খাদ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নেপালে বাংলাদেশের দ্বিতীয় দফায় ত্রাণ প্রেরণ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ