Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্র-পাকিস্তান সামরিক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পুনরায় চালু হচ্ছে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৫:৫৪ পিএম

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক প্রশিক্ষণ ও শিক্ষামূলক কর্মসূচিতে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ পুনরায় শুরু করার অনুমোদন দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। বৃহস্পতিবার মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে। স্থগিত করার এক বছরেরও বেশি সময় পরে পাকিস্তানের জন্য পুণরায় এই কার্যক্রম চালু হল।

আন্তর্জাতিক সামরিক শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম, বা ‘আইএমইটি’ এক দশকেরও বেশি সময় ধরে মার্কিন-পাকিস্তান সহযোগিতামূলক সামরিক সম্পর্ক বজায় রেখেছিল। চলতি বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মধ্যকার বৈঠকের পর দুই দেশের সম্পর্কের উন্নতি হয়। তারই ধারাবাকিতায় এক বছরেরও বেশি সময় পরে ইসলামাবাদকে পুনরায় অংশগ্রহণ করতে দেয়ার সিদ্ধান্ত আসল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে আলোচনায় সহযোগিতা করায় ওয়াশিংটনও ইসলামাবাদকে কৃতিত্ব দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানদের মধ্যে সম্প্রতি আলোচনা আবার শুরু হয়েছিল। এর আগে মার্কিন কর্মকর্তাদের অভিযোগ ছিল, পাকিস্তানের সামরিক নেতৃত্বাধীন গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ তালেবানদের আশ্রয় এবং অন্যান্য সহায়তা দেয়া হয়। যদিও পাকিস্তান এই অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর ‘আইএমইটি’ পরিচালনা করে। মার্কিন নিরাপত্তা সহায়তা কর্মসূচির আওতায় এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য পাকিস্তান বছরে ২০০ কোটি ডলার পেত। গত বছরের জানুয়ারীতে ট্রাম্প হঠাৎ করেই পরমাণু-সজ্জিত দক্ষিণ এশীয় মিত্র দেশটির বিরুদ্ধে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে সহযোগিতা না করার করার অভিযোগ তুলে এই সহযোগিতা বন্ধ করে দেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের অন্ধকারে রেখেই ট্রাম্প টুইটে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন।

চলতি বছরের শুরুর দিকে পাকিস্তান-ভিত্তিক চরমপন্থী গোষ্ঠীর হামলায় কমপক্ষে ৪০ জন ভারতীয় আধাসামরিক সৈন্যকে নিহত হওয়ার পরে, আমেরিকা ইসলামাবাদকে তার অঞ্চল থেকে অভিযান চালিয়ে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ‘টেকসই এবং স্থায়ী ব্যবস্থা’ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছিল।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের একজন মুখপাত্র ইমেইল বার্তায় জানান যে, ২০১৮ সালে ট্রাম্পের সুরক্ষা সহায়তা স্থগিত করার সিদ্ধান্তটি ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় সুরক্ষা স্বার্থকে সমর্থনকারী কর্মসূচির জন্য ব্যতিক্রম।’ আইএমইটিতে পাকিস্তানের অংশগ্রহণ পুনরুদ্ধারের সিদ্ধান্তটি ‘এরকম একটি ব্যতিক্রম’ ছিল বলে জানান তিনি। মুখপাত্র বলেন, এই কর্মসূচী ‘অংশীদারি অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে আমাদের দেশগুলির মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা বাড়ানোর একটি সুযোগ প্রদান করে।’ তিনি যোগ করেন, ‘আমরা আঞ্চলিক সুরক্ষা এবং স্থিতিশীলতার অগ্রযাত্রার দৃঢ় পদক্ষেপের মাধ্যমে এই সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে চাই।’

প্রোগ্রামটির পুনরায় শুরু করতে অবশ্য কংগ্রেসের অনুমোদন প্রয়োজন। আইএমইটি মার্কিন সামরিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিদেশী সামরিক কর্মকর্তাদের যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনা ওয়ার কলেজ এবং আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের নেভাল ওয়ার কলেজের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দেয়। সূত্র: নিউজ রিপাবলিক।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ