Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ছাতকে শ্যালককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

ছাতক (সুনামগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

সুনামগঞ্জের ছাতকে পাষন্ড দুলাভাই কর্তৃক ১১বছরের শ্যালককে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার রাতে উপজেলার ভাতগাঁও ইউনিয়নের বরাটুকা মেওয়ারতৈল গ্রামে। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভাতগাঁও ইউনিয়নের বরাটুকা মেওয়ারতৈল গ্রামের খালিক মিয়ার পুত্র শিপন মিয়া নামের পাষন্ড এক দুলাভাই কর্তৃক বুধবার সন্ধ্যায় কৌশলে জাহিদপুর বাজার থেকে সিএনজি যোগে শিশু শ্যালক আমির উদ্দিনকে জোরপূর্বক তার বাড়িতে নিয়ে যায়। রাতভর তাকে শারিরিক ও মানুষিক নির্যাতন করে ভোর বেলা পাশের বাড়ির মাসুক লন্ডনীর একটি সেফটিক ট্যাংকের ভেতরে হাত বেঁেধ ফেলে চাপাতি দিয়ে কুপাতে থাকে দুলাভাই। চাপাতির কুপে শিশু আমিরের মুখের ডানে ও মাথার পিছনের অংশে মারাত্বক ভাবে ক্ষত-বিক্ষত হয়। এক পর্যায়ে তার শোর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসার আগে মৃত ভেবে সেফটিক ট্যাংকের মুখ বন্ধ করে দ্রæত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পাষন্ড শিপন। সকালে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে সকালে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। বর্তমানে শিশুটি চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালের যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। এদিকে সন্ধ্যা ঘনিয়ে গেলে বাজার থেকে সন্তান বাড়িতে না যাওয়ায় তার পরিবারের লোকজনরা চার দিকে খোঁজতে থাকেন। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে তারা ওসমানী হাসপাতালে পুত্রের সন্ধান পায়।
এ ব্যাপারে জাহিদপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই বেলাল শিশু নির্যাতনের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, শিশুটি জাহিদপুর বাজারের একটি চায়ের দোকানে কাজ করত।
থানার ওসি মোস্তফা কামাল বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এএসপি সার্কেল বিল্লাল হোসেন বলেন, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন, অভিযোগ দিলে মামলা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন