Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আ.লীগের সম্মেলনে নির্দেশনা না থাকায় জাতি হতাশ

সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন থেকে চলমান সঙ্কট উত্তরণে কোনো দিকনির্দেশনা না থাকায় জাতি হতাশ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, জাতির প্রত্যাশা ছিল, আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মাধ্যমে হয়তোবা গণতন্ত্র উত্তরণের একটা পথ দেখা যাবে। কিন্তু তাদের (আওয়ামী লীগ) সম্মেলনে সেই পথ তারা দেখাতে পারেনি। সেই সঙ্গে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, সামাজিক উন্নয়ন, রাজনৈতিক যে উন্নয়ন- তার কোনটার জন্য, সংকট উত্তরণের জন্য কোনো দিকনির্দেশনা দিতে তারা এই সম্মেলনে ব্যর্থ হয়েছে।
গতকাল (শনিবার) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও জিয়া পরিষদের চেয়ারম্যান মরহুম কবীর মুরাদের স্মরণে মিলাদ ও দোয়ার মাহফিল শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, গণতন্ত্রহীন একটা অবস্থা, সংবিধানকে পুরোপুরি নসাৎ করে তাকে উপেক্ষা করা এবং একদলীয় একটা শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করবার লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ কাজ করছে প্রায় এক দশক ধরে। আমরা তাদের সম্মেলনে দেখতে পেলাম সেই কথাগুলোই আবার সামনে এসেছে। ফলে জাতি সম্পূর্ণভাবে হতাশ হয়েছে। এখানে ব্যক্তি ও দলের প্রশংসা, যেটাকে আমরা বলি বন্দনা- করা হয়েছে। কিন্তু জাতির যে সংঙ্কট সেই সঙ্কট উত্তরণের জন্য বেশি কিছু এই সম্মেলনে আসেনি।
বিএনপির কাউন্সিল কবে হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপনারা জানেন, আমরা একটা প্রচন্ড বৈরী ও প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে রাজনীতি করছি। আমাদের রাজনীতির স্পেস এখানে পাচ্ছি না। যার ফলে আমাদের স্বাভাবিক কাযর্ক্রম পরিচালনা করতে পারি না। বেশিরভাগ জায়গায় আমাদের কাউন্সিল করতে দেয়া হয় না। বিশেষ করে জেলা ও উপজেলাগুলোতে আমাদের কাউন্সিল করতে দেয়া হয় না। এর মধ্যেও আমরা কাজ করছি। আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে সংগঠনকে গুছিয়ে আনা হচ্ছে। আমরা যত দ্রæততর সময়ে এটা শেষ করব এবং এরমধ্যেই হয়তবা আমরা কাউন্সিল করতে চেষ্টা করব।
রাজাকারের তালিকায় ভুলভ্রান্তির পেছনে বিএনপি-জামায়াত জড়িত রয়েছে বলে একজন মন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি মহাসচিব বলেন, এসব হচ্ছে সব ব্যর্থতার দায় অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দেয়ার পুরনো বিষয়, এটা নতুন না। এটা আওয়ামী লীগের চরিত্র। সেইভাবে সব সময় তাদের ব্যর্থতা, তাদের অপরাধ অন্যের ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা করে।
মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মির্জা ফখরুল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আব্দুল কুদ্দুস, কেন্দ্রীয় নেতা মীর সরফত আলী সপু, আবদুস সালাম আজাদ, তাইফুল ইসলাম টিপু, ওলামা দলের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম তালুকদার, জিয়া পরিষদের এমতাজ হোসেন, শফিকুল ইসলাম, আবদুল কালাম আজাদসহ নেতাকর্মীরা এতে অংশ নেন।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন