Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

নূরের ওপর হামলার প্রতিবাদে রাবিতে মানববন্ধন

রাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২:৪৭ পিএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভিপি নুরুল হক নুরসহ তার সহযোগিদের ওপর ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের হামলার প্রতিবাদে মানবন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিয় গ্রন্থাগারের সামনে এ কর্মসূচির আয়োজন করে তারা।

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের রাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক মোর্শেদুল আলমের সঞ্চালনায় এসময় বক্তারা বলেন, আজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ভয়ের উপত্যকায় পরিণত হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ থেকে ছাদ থেকে ফেলে দেয়ার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটেছে। শিক্ষার্থীদের মনে আতঙ্ক ছড়িয়ে শিক্ষা গবেষনা বাদ দিয়ে গুন্ডাদেরকে পোষা হচ্ছে। আমরা এ ঘটনার বিচার চাইনা, কারন দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু হয়েছে যার ফলে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বেড়েই চলেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে নুরুর ওপর হামলার বিচার দাবি করছি।
আপনারা যদি বিচার না করতে পারেন তাহলে পদত্যাগ করেন বলেও হুশিয়ারি দেন বক্তারা।
বক্তারা বলেন, আজকে নুরুর উপর যে হামলা করা হয়েছে তা পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠিরাও এদু:সাহস করেনি। মুক্তিযুদ্ধের নাম ব্যবহার করে আমরা এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছি। এটা কোনো সাধারন ঘটনা নয় আগামীর বাংলাদেশের জন্য অশনিসংকেত। আমি বঙ্গবন্ধুর ভাষায় বলতে চাই এদেশে কোনো বিচারের সংস্কৃতি নেই, আদালতে কোনো বিচার নেই , সুপ্রিমকোর্টে কোনো বিচার নেই। আমাদের ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তুলতে হবে। নইলে এ স্বৈরাচারী শাসককে বিতারিত করতে পারবোনা। আমাদের একটাই দাবি হয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সন্ত্রাস থাকবে নইলে শিক্ষা থাকবে। শিক্ষা এবং সন্ত্রাস একসাথে চলেনা। এই ছাত্র সমাজ যদি আবার রাস্তা প্রকম্পিত করে তাহলে আপনারা পালানোর পথ খুজে পাবেননা। তাই অনতি বিলম্বে দোষীদের শাস্তির ব্যবস্থা করুন।

ভারতে এনআরসি উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, এনআরসি শুধুর ভারতের অভ্যন্তরীন বিষয় নয়। কারন, এনআরসির ভিতরে লিখিত আছে বাংলাদেশের কথা। এনআরসি বা ক্যাম্প বাস্তবায়িত হলে রোহিঙ্গা সংকটের মতো বিষফোঁড়া হয়ে দাড়াবে। তাই সময় থাকতে ব্যবস্থা নিন।
এসয় মাবন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয় আরবী বিভাগের অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ, অধ্যাপক আব্দুল লতিফ, ছাত্র অধিকার পরিষদ রাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক মাজহারুল ইসলাম, ছাত্র ফেডারেশন রাবি শাখার সভাপতি মোহাব্বত হোসেন মিলন, ছাত্রমৈত্রির সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার রিদম, আব্দুল মজিদ অন্তরসহ প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী।

উল্লেখ্য, গতকাল রোববার ডাকসু ভবনের সামনে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দ্বারা হামলার শিকার হয়েছেন ভিপি নুরুল হক নূর, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেন, রাশেদ খানসহ ১৫ জন। এসময় তাদের বেরধক মারধর করা হয়। পরে হামলায় আহত নূর ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ১৫ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার এখন চিকিৎসাধীণ আছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঢাবি


আরও
আরও পড়ুন