Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৮ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

ধর্ষন করে ১০ বছরের শিশুকে হত্যা করার লোমহর্ষক স্বীকারোক্তি দিল ধর্ষক

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৬:১৫ পিএম

ঢাকার দক্ষিন কেরানীগঞ্জে ১০ বছরের শিশু সাদিয়া আক্তারকে ধর্ষন করে হত্যা করার স্বীকারোক্তিমুলক লোমহর্ষক জবানবন্দি দিয়েছে ঘাতক ও ধর্ষক মোঃ শুভ মিয়া(১৮)। দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক(অপারেশন) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আব্দুর রাশিদ আজ মঙ্গলবার(২৪ডিসেম্বর) দুপুরে মামলার আসামী ঘাতক ও ধর্ষক শুভকে ঢাকার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মনির হোসেনের আদালতে হাজির করেন। এসময় শুভ ওই বিচারকের কাছে ১৬৪ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক লোমহর্ষক জবানবন্দিদেয়। দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা যায় ঘাতক শুভ গত শুক্রবার রাতে শিশু সাদিয়া আক্তারকে কৌশলে রাজধানীর রামপুরা এলাকা থেকে দক্ষিন কেরানীগঞ্জের ইকুরিয়া মুসলিম নগর এলাকায় একটি হাউজিং প্রকল্পের নির্জন প্লটের ভিতর এনে তাকে ধর্ষন করে ।পরে তাকে হত্যা করে ফেলে পালিয়ে যায় সে। পরের দিন শনিবার দুপুরে অজ্ঞাত নামা লাশ হিসেবে শিশু সাদিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই দিন রাতেই এসআই সাক্রাতুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি মামলা করা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আব্দুর রাশিদ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে সোমবার রাজধানীর ২৪৮/৭ পুর্ব রামপুরার টিভি লিংক রোড এলাকা থেকে ঘাতক ও ধর্ষক শুভকে গ্রেফতার করেন। শুভ ওই এলাকার একটি ইন্টারনেট ও ডিশ অফিসের বিলম্যানের কাজ করতো। তার বাবার নাম মোঃ আলমগীর হোসেন ওরফে চন্দন। বাড়ি নেত্রকোনা জেলার সদর থানার মহিষহাটি গ্রামে।নিহত সাদিয়া আক্তার রামপুরা মিসবাহুল জান্নাত মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রী ছিল।তার বাবার নাম মোঃ রফিকুল ইসলাম। তাদের বাড়ি পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া থানার ঘাটিচোরা গ্রামে। সাদিয়া তার বাবা-মায়ের সাথে রাজধানীর ২৪৮/৭ পুর্ব রামপুরার টিভি লিংক রোড এলাকায় সেলিমুজ্জামনের বাড়িতে ভাড়া থাকতো। দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ শাহজামান জানান, শিশুটি গত শুক্রবারে নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় ওইদিন রাতেই তার বাবা রামপুরা থানায় একটি জিডি করেছিলেন। মামলাটি আরো তদন্ত করা হবে। মুল ঘাতককে গ্রেফতার করতে পেরে আমরা কিছুটা শ্বস্তি পেয়েছি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: স্বীকারোক্তি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ