Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬, ০২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

প্রসারিত সম্পর্কে ধাক্কা খাচ্ছে ভারত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

মালয়েশিয়া বা তুরস্কের মতো দেশগুলো গত কয়েক মাস ধারাবাহিকভাবে ভারতের মোদি সরকারের সমালোচনা করে এসেছে। তবে ওআইসি (অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন)-তে কিছুটা হলেও নয়াদিল্লির পাশে থেকেছে আরব দেশগুলো। সেই পাশে থাকার ম‚ল কারণ ছিল অবশ্যই বাণিজ্যিক। কিন্তু নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি নিয়ে উত্তাল রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ক্রমশ ক্ষোভ বাড়ছে গোটা মুসলিম দুনিয়ারই। কিন্তু উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে ভারত। অভিযোগ উঠছে, ভারতে সংখ্যালঘু মুসলিমদের নিরাপত্তা বিঘিœত হচ্ছে। ক‚টনৈতিক শিবিরের মতে, বিষয়টি সরকারের কাছে আগামী দিনগুলোতে বড় চাপের কারণ হয়ে উঠতে পারে। সউদী আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছ থেকেও নেতিবাচক বার্তা পাচ্ছে ভারত। স¤প্রতি দিল্লির এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানান, কয়েক বছরে পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে ভারতের বন্ধুত্বের সম্পর্ক প্রসারিত হয়েছে। ভারতের কাছে তা সম্পদস্বরূপ। ক‚টনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ‘প্রসারিত সম্পর্ক’ যে অনেকটাই ধাক্কা খেতে চলেছে তা একের পর এক ঘটনায় স্পষ্ট। ঘরোয়া রাজনীতি ও কেন্দ্রীয় নীতি প্রণয়নের জন্য পররাষ্ট্রনীতির প্রশ্নে কতটা সমঝোতা করা হবে, এখন সেটাই বড় চ্যালেঞ্জ ভারতের পররাষ্ট্র দফতরের সামনে। ভারত সরকারের কাছে সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হলো, যে সুরে ও ভাষায় ৫৭টি মুসলমান রাষ্ট্রের সংগঠন ওআইসি সমালোচনা করতে শুরু করেছে, তার প্রভাব সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে ভারতের বাণিজ্যিক ও কৌশলগত সম্পর্কে পড়তে পারে। যার ফায়দা নিতে পারে আন্তঃসীমান্ত সন্ত্রাস পাচারের জন্য বারবার কাঠগড়ায় দাঁড়ানো প্রতিবেশী রাষ্ট্র। দু’দিন আগেই ওআইসি-র পক্ষ থেকে বলা হয়, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলিম স¤প্রদায় কোণঠাসা হচ্ছে। গোটা প্রক্রিয়া এবং পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে উদ্বিগ্ন ওআইসি। জাতিসঙ্ঘ এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক মানদÐে ধর্মীয় বৈষম্যের বিরুদ্ধে যে যে সনদ রয়েছে, তার থেকে যদি ভারতে অন্য কিছু হয়, তা হলে তা গোটা অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য বিপজ্জনক। মুসলিমদের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য ভারত সরকারকে ওআইসি-র পক্ষ থেকে সরাসরি অনুরোধ করা হচ্ছে। অথচ এই ওআইসি-তে গত বছরেই প্রথম ‘সম্মানিত অতিথি’ হিসেবে ডাক পায় ভারত। প্রতিবাদে সম্মেলন বয়কট করে পাকিস্তান। তখন বিষয়টিকে ক‚টনৈতিক জয় হিসেবে তুলে ধরতে পিছপা হয়নি নয়াদিল্লি। এবিপি।



 

Show all comments
  • Arodhy Moon ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    পৃথিবী বৃদ্ধ শাসকদের কবলে পড়েছে।এরা জীবনভর নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য সংঘাতের পথ বেছে নিচ্ছে।পৃথিবীকে করে তুলছে অনিরাপদ। মোদি কীট তাদের একটা।
    Total Reply(0) Reply
  • MD Shah Alom Mozumdar ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১০ এএম says : 0
    দিল্লিতে দিল্লির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করা যায় কিন্তু বাংলাদেশের করা যায়না
    Total Reply(0) Reply
  • সন্ধানী সেচ্ছাসেবী সংঘ ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    ভারতের মুসলমানদের প্রতি গভীর সহানুভুতি ও সমবেদনা। বাংলাদেশের হিন্দুরা যাতে নিরাপদে থাকে সেই নিশ্চয়তা বিধান প্রশাসন কে করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Jalal Ahmed Bhuyan ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    তীব্র আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে অধিকার বাস্তবায়ন করতে হবে মোদিকে হঠাতে হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Liakot Ali ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    বাংলাদেশেও ৫০ লাখ ভারতীয় নাগরিক বাস করে বাংলাদেশ কোন দিন তাদের ভারতে ফেরত পাঠাবে না। কারণ বাংলাদেশের মানুষের মানবতা আছে ।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Ashraful Hossain ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১২ এএম says : 0
    ভারতে যেমন প্রচুর উগ্র হিন্দুদের বসবাস তেমনি ভাবে মানবতাবাদী বিবেকবান হিন্দুদেরও অভাব নেই। সেই বিবেকবান মানুষেরা জেগে উঠেছে। তারা ভারতকে পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন দেশ হতে দেবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Hasan Biplob ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১:১৩ এএম says : 1
    ইতিহাসে পরেছি হিন্দু জমিদারদের অত্যাচার এর কথা, এখন ভারতে তা দেখছি। অথচ মুসলিম শাশকরা যদি চাইত ভারতে বর্ষে হিন্দুই থাকত না। মুখে মানবতা কামে বেল পাতা
    Total Reply(0) Reply
  • Himel ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৬ পিএম says : 0
    ইন্ডিয়া এমন একটা রাষ্ট্র যেখানে মানুষের চেয়ে গরুর মুল্য অনেক।পৃথিবীতে তারাই একটা জাতি যারা গরুর মুত,দুধ ও গোবর খেয়ে থাকে।এরা গাইয়ের গোস্ত না খেলেও গাইয়ের চামড়া দিয়ে ঠিকই জুতা বানিয়ে ব্যবহার করে।অদ্ভুত মানুষের বিচিত্র বারাবাড়ি।
    Total Reply(0) Reply
  • Himel ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৭ পিএম says : 0
    ইন্ডিয়া এমন একটা রাষ্ট্র যেখানে মানুষের চেয়ে গরুর মুল্য অনেক।পৃথিবীতে তারাই একটা জাতি যারা গরুর মুত,দুধ ও গোবর খেয়ে থাকে।এরা গাইয়ের গোস্ত না খেলেও গাইয়ের চামড়া দিয়ে ঠিকই জুতা বানিয়ে ব্যবহার করে।অদ্ভুত মানুষের বিচিত্র বারাবাড়ি।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়া

১৮ মার্চ, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ