Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

পার্বতীপুরে রেলওয়ের বাসা বরাদ্দ দিয়ে এক মাসেই বাতিল

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

পার্বতীপুরে রেলওয়ে বাসা বাড়িগুলো দীর্ঘদিন থেকে অবৈধ দখলদারদের কবলে থাকলেও রেলকর্তৃপক্ষ বাসাবাড়িগুলো উদ্ধারে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। অভিযোগ রয়েছে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে অবৈধ দখলদারদের বসবাসের সুযোগ করে দিয়েছেন সহকারি নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান।
গত ৭ নভেম্বর বাবুপাড়া রেলকলোনীর টি/১৬৩(ই) নম্বর বাসাটি প্রকৌশল বিভাগের রেল কর্মচারি (ওয়েম্যান) মো. আমজাদ হোসেনের নামে বরাদ্দ দেয়া হয় (দপ্তরাদেশ নং-৩০৩/পিবিটি/১৯, তারিখঃ ০৭/১১/২০১৯)। কিন্তু ওই বাসায় অবৈধভাবে বসবাসকারি আব্দুল আজিজের নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে ১ মাসের মাথায় গত ১২ ডিসেম্বর (দপ্তরাদেশ নং- ৩১৪/পিবিটি) বাতিল করা হয়। এ বিষয়ে ওয়েম্যান মো. আমজাদ হোসেন রেলওয়ের পশ্চিম জোনের প্রধান প্রকৌশলীর (রাজশাহী) কাছে গত ২৮ ডিসেম্বর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে পার্বতীপুর সহকারি প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান জানান, রেল মন্ত্রীর একজন এপিএসএর অনুরোধে আমজাদ হোসেনের নামে বরাদ্দ বাসাটি বাতিল করা হয়েছে। এরকম ঘটনা শুধু আমজাদ হোসেনের বেলায় হয়েছে এমনটি নয়। পার্বতীপুর উর্দ্ধতন উপ-সহকারি প্রকৌশলী (কার্য্য) তহিদুল ইসলাম জানান, পার্বতীপুরে রেলওয়ের ১ হাজার ৩২৬টি আবাসিক বাসাবাড়ি রয়েছে। এর মধ্যে ৬৭৫ টিতে অবৈধ দখলদাররা বসবাস করছে। এর ফলে প্রতিবছর রেল কোটি কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রেলওয়ে


আরও
আরও পড়ুন