Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সাইফ-মুক্তিযোদ্ধার বিদায়ে সেমিতে পুলিশ-বসুন্ধরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:০০ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের মৌসুম সূচক টুর্নামেন্ট টিভিএস ফেডারেশন কাপ থেকে শক্তিশালি সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের বিদায়ে সেমিফাইনালে উঠে গেল নবাগত বাংলাদেশ পুলিশ ফুটবল ক্লাব ও বসুন্ধরা কিংস। মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফেডারেশন কাপের তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে পুলিশ ৩-১ গোলে সাইফকে হারিয়ে চমক দেখালো। বিজয়ী দলের হয়ে আমেরিকান ফরোয়ার্ড সিডনি এডাম দু’টি ও স্থানীয় ফরোয়ার্ড এমএস বাবলু একটি গোল করেন। সাইফের হয়ে ব্যবধান কমানো একমাত্র গোলটি করেন কিরগিস্তানী মিডফিল্ডার আখমেদভ। একই মাঠে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে বসুন্ধরা কিংস টাইব্রেকারে ৪-১ গোলে মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে সেমিতে জায়গা করে নেয়। নির্ধারিত ৯০ ও অতিরিক্ত ৩০ মিনিটের খেলা ১-১ গোলে অমিমাংসিত থাকায় টাইব্রেকারে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ হয়। যেখানে জয় পায় বসুন্ধরা।

বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ থেকে সদ্যই উঠে এসেছে নবাগত পুলিশ। ঘরোয়া ফুটবলের অভিষেক আসরেই বাজিমাত। ফেডারেশন কাপে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমে শক্তিশালী সাইফকে বিদায় করে শেষ চারে জায়গা করে নিল দলটি।আগের দিন দুই আবাহনীর বিদায়ের পর এবার ফেডারেশন কাপ থেকে ছিটকে পড়লো সাইফ। তবে পুলিশ-সাইফ দুই দলের এ দ্বৈরথে ফেবারিট তকমা সাইফের গায়েই ছিল। কারণ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়াসহ জাতীয় দলের তিনজন ফুটবলার রয়েছেন দলটিতে। বিপরীত দিকে তারুণ্য নির্ভর দল পুলিশ। এবারই প্রথম তারা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলার সুযোগ পেয়েছে। দুই দলের মধ্যে অভিজ্ঞতার দিক দিয়েও এগিয়ে ছিল সাইফ স্পোর্টিং। কিন্তু কাল ম্যাচ শেষে সব হিসেব-নিকেষই উল্টে যায়। যদিও ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাতœক ফুটবল উপহার দিয়ে পুলিশকে কোনঠাসা করে রাখে সাইফ। তবে ম্যাচের ধারার বিপরীতে ৩১ মিনিটে পুলিশকে প্রথম গোল এনে দেন স্থানীয় ফরোয়ার্ড বাবলু। এসময় সিডনি এডামের হেডের বল পেয়ে বুক দিয়ে রিসিভ করে সাইড ভলিতে নিশানা ভেদ করেন তিনি (১-০)। প্রথমার্ধের যোগকরা সময়ে (৪৫+১ মিনিট) ফের উচ্ছ্বাসে মাতে নবাগতরা। এসময় সাইফ স্পোর্টিংকে হতাশ করে বক্সের অনেক বাইরে থেকে জোড়ালো শটে গোল করেন আমেরিকান ফরোয়ার্ড সিডনি এডাম। ডানপ্রান্ত থেকে সতীর্থের পাওয়া ক্রস থেকে বল রিসিভ করেই সেকেন্ডবার ঘেঁষে শট নেন তিনি। সাইফের গোলরক্ষক পাপ্পু হোসেন ঝাঁপ দিয়েছিলেন। কিন্তু বলের গতির সামনে তিনি ছিলেন অসহায় (২-০)। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আবারো সাইফের জালে বল ফেলে পুলিশ। এবারও গোলের নায়ক সেই সিডনি এডাম। ম্যাচের ৫২ মিনিটে ডানপ্রান্ত দিয়ে লুকার ক্রসে প্লেসিং শটে সাইফ গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে বল জালে ফেলেন সিডনি (৩-০)। তিন গোল হজম করে ম্যাচ থেকে ছিঁটকে পড়ে সাইফ। তবে ম্যাচের ৫৫ মিনিটে ব্যবধান কমায় তারা। এসময় তাদের কিরগিজ মিডফিল্ডার আখমেদভ বক্সের একটু বাইরে থেকে ফ্রি কিকে গোল আদায় করে নেন। সেকেন্ডবার ঘেঁষে বল সরাসরি জালে আশ্রয় নেয় (১-৩)। এরপর শুরু হয় সাইফের ফরোয়ার্ডদের গোল মিসের মহড়া। ৭৬ মিনিটে ছোট বক্সের সামনে বল পেয়েও ক্রসবারের অনেক উপর দিয়ে বাইরে পাঠান দলটির কলম্বিয়ান মিডফিল্ডার করডোভা। তবে ম্যাচের বাকি সময় আর কোন গোল না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ৩-১ গোলের বড় জয় নিয়ে সেমিতে ওঠার আনন্দে মাঠ ছাড়ে পুলিশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন