Inqilab Logo

সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২ কার্তিক ১৪২৮, ১০ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সরকার পাটকল শ্রমিকদের সাথে প্রতারণা করছে কেন্দ্রীয় সভায় বাম গণতান্ত্রিক জোট

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

সরকার পাটকল শ্রমিকদের সাথে বারবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রক্ষা না করে প্রতারণা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বাম গণতান্ত্রিত জোট। জোট নেতারা এসব প্রতারণা বন্ধ করে পাটকল শ্রমিকদের ন্যায়সঙ্গত দাবি মেনে নিতে আহবান জানিয়েছেন। এর পাশাপাশি তারা বছরে একাধিকবার জ্বালানির দাম পরিবর্তন করার গণবিরোধী আইন প্রত্যাহারের দাবি জানান।

গতকাল বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের এক সভায় এসব কথা বলেন নেতারা। বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদ (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক মোবিনুল হায়দার চৌধুরী, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকী, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক এতে উপস্থিত ছিলেন।

নেতারা বলেন, সরকার পাটকল শ্রমিকদের সাথে বারবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রক্ষা না করে প্রতারণা করছে। পাটকল শ্রমিকরা তাদের ন্যায়সঙ্গত দাবি নিয়ে অনশন করছে। এর আগে অনশনে দুইজন অনশনরত শ্রমিক জীবন দিয়েছে। সরকার প্রতিশ্রুতিতে আন্দোলনরত শ্রমিকরা অনশন ভাঙলেও গত দুই সপ্তাহ তাদের দাবি পূরন না হওয়ায় শ্রমিকরা পুনরায় অনশন করছে। নেতৃবৃন্দ শ্রমিকদের সাথে সরকারের প্রতারণার তীব্র নিন্দা জানান। নেতৃবৃন্দ পাটকল শ্রমিকদের ১১ দফা দাবি মেনে নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। তারা পাট শিল্পে ২০১৫ সালের ঘোষিত মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন ও শ্রমিকদের বকেয়া মজুরি পরিশোধের দাবি জানান।

অপর এক বিবৃতিতে নেতারা জ্বালানির দাম বছরে একাধিকবার পরিবর্তন করা যাবে এমন বিধান রেখে ‘বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (সংশোধন) আইন’-এর খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন করায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করে অবিলম্বে জনস্বার্থবিরোধী এ সংশোধনী প্রত্যাহার করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। নেতৃবৃন্দ এ সংশোধনীকে নববর্ষে জনগণের প্রতি নিষ্ঠুর তামাশা বলে আখ্যায়িত করেন। তারা জ্বালানি খাতে দুর্নীতি ও ভুলনীতির অবসান ঘটিয়ে জনগণকে সাশ্রয়ী মূল্যে বিদ্যুতসহ অন্যান্যা জ্বালানি সরবরাহের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

পাটকল শ্রমিকদের ১১ দফা দাবিতে চলমান আন্দোলনে পূর্ণসমর্থন জানিয়ে গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের সমন্বয়ক ও গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি জহিরুল ইসলামসহ গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সভাপতি মোশরেফা মিশু, গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতি সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার, গার্মেন্টস টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশন সভাপতি অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান ইসমাইল, গার্মেন্টস শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি বিপ্লব ভট্টাচার্য্য, গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির নেতা প্রদীপ রায়, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের নেতা বিপুল কুমার দাস, ওএসকে গার্মেন্টস টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের নেতা ইয়াসিন মিয়া, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির নেতা মীর মোস্তাক হোসেন, জাতীয় সোয়েটার গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের নেতা এএসএস ফয়েজ হোসেন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে দিয়েছেন। বিবৃতিতে তারা পাটকল শ্রমিকদের ন্যায্য সকল দাবির প্রতি পূর্ণসমর্থন জানান। নেতারা বলেন, পাটকলগুলোকে নিয়ে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি)-এর মাধ্যমে বেসরকারিকরণের চক্রান্ত বাতিল, অবিলম্বে বকেয়া বেতন পরিশোধ, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের গ্র্যাচুইটির টাকা দেওয়া, শ্রমিকদের সাপ্তাহিক মজুরি নিয়মিত পরিশোধ করা, ছুটি নিশ্চিতকরণ ইত্যাদি দাবিতে পাটকল শ্রমিকরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে। অনশনে দুই জন শ্রমিককে জীবনও দিতে হয়েছে। অথচ, সরকার এ ব্যাপারে এখনও কোনো সমাধান দিতে পারেনি। মালিকশ্রেণিও একের পর এক পাটকলের শ্রমিকদের বঞ্চিত করে যাচ্ছে। তারা এগুলোর সুরাহা অবিলম্বে করার জন্য বিজিএমসি এবং সরকারের কাছে দাবি জানান।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাটকল শ্রমিক


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ