Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

অনৈতিকতা এখন একটি জাতীয় সমস্যা- সেমিনারে বক্তারা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:২০ পিএম

অনৈতিকতা এখন একটি জাতীয় সমস্যা। জাতীয়ভাবেই এই সমস্যার সমাধান করতে হবে। শুধুমাত্র পাঠ্যপুস্তকের বা ক্লাসের মধ্যে না থেকে প্রতিটি পেশার জন্যই নৈতিক শিক্ষা এখন সময়ের দাবী।

শনিবার (৪ জানুয়ারি) রাজধানীর আহছানউল্লা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত নৈতিক শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার অভিজ্ঞতা বিনিময় ও আগামীর কর্মভাবনা বিষয়ক কর্মশালায় বক্তারা এ কথা বলেন।

বক্তারা সমাজের প্রতিনিধিত্বকারী ব্যক্তিবর্গের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছে নৈতিকতার বিষয়টি ইতিবাচকভাবে তুলে ধরে এই সমস্যার সমাধান করার পরামর্শ দেন।

তারা বলেন, নৈতিকতার অবক্ষয় হচ্ছে সমাজের প্রতিটি স্তরে। স্কুল কলেজের শিক্ষাথী থেকে শুরু করে সর্বস্তরে বিরাজমান এই অবক্ষয় রুখতে অনিয়মের পাশাপাশি সততার জন্য পুরস্কারের ব্যবস্থাও চালু করা দরকার। তাদের মতে, সমাজের প্রতিটি স্তর থেকে নৈতিকতার অবক্ষয় দূর করতে পারলে সামগ্রিকভাবেই দেশের উন্নতি হবে।

সেন্টার ফর এথিক্স (সিইই) উদ্যোগে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও সিইই-এর পরিচালক ড. মিজানুর রহমান, সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার প্রফেসর ড. গোলাম রহমান, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদ হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব হেল্থ ইকোনোমিক্স-এর সাবেক পরিচালক প্রফেসর আব্দুল হামিদ, আহ্ছানউল্লা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফাজলী ইলাহী, বাংলাদেশ একাডেমিক অব সায়েন্সে-এর সচিব প্রফেসর ড. হাসিনা খান, নর্থ আমেরিকান বাংলাদেশি ইসলামী কমিউনিটি (নাবিক)-এর প্রতিনিধি ড. রাশেদ নিজাম, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের নির্বাহী পরিচালক ড. এম এহ্ছানুর রহমান এবং ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের সাধারণ সম্পাদক ড. খলিলুর রহমানসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার ব্যক্তিবর্গ।

উল্লেখ্য, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ও নর্থ আমেরিকান বাংলাদেশি ইসলামী কমিউনিটি (নাবিক)-এর যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত সেন্টার ফর এথিক্স এডুকেশন (সিইই) দেশের স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে নৈতিক শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে ২০১৮ সাল থেকে নৈতিক শিক্ষা কোর্স নামের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এই কার্যক্রমের অভিজ্ঞতা এবং ভবিষ্যতের কর্মভাবনা এই কর্মশালার মূখ্য উদ্দেশ্য।



 

Show all comments
  • রাজু আহমেদ ৭ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১৪ পিএম says : 0
    অনৈতিকতা জাতীয় সমস্যা শীর্ষক সেমিনারে আমার দেশের জ্ঞানী সম্মানী বক্তারা তাদের বক্তৃতায় আনেক দামী কথা তুলে ধরেছে। আমি একজন সমাজকর্মের ছাএ। এ কথা আমার আনেক ভালো লেগেছে।আপনারা এই বিষয়ের সাথে চলছেন আপনাদের প্রতি আমার ভালোবাসা থাকবে অজীবন।সম্মানিত মহাদয় আপনাদের বক্তব্য বা কথা আনেক সুসংগঠিত,সুসংগত সুসংযত,যে সকল কথা আমি জানিনা।তারপর ও আমি আমার ভালো লাগা ও নৈতিকতা দিক দিয়ে বলতে চাই অনৈতিকতার কুফল ও নৈতিকতারর সুফল জনসাধারণকে অবহিত করা।প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যবস্তার প্রথম দিয়ে বা ক্লাস ৩ থেকে নৈতিকতা ও অনৈতিকতা প্রসংগিক আলোচনা করা।সমাজের নেতৃত্বদানকরী দের মাধ্যমে ও এই ভাবনা জাগ্রত করতে হবে।তবে পরিবার থেকে সবথেকে ভালো ভুমিকা রাকবে নৈতিকতা প্রতিষ্ঠায়।যা প্রতিষ্ঠা হলে অনৈতিকতা সমাজে বিরাজ বা বিদ্যমান থাকবেনা।আমরা প্রত্যেক জন প্রত্যেক জনের কাজটা যদি নিজের জন্য করি,ভালোর জন্য করি,দেশের জন্য তখন এমনিতেই ভালো হবে।সম্মানিত সুধীজন আমি সমাজকর্মে লেখাপড় করে একটা বিষয় অনুধ্যাবন করেছি, যে আমি আমার সমাজে যাকিছু করতে যাই সেখানটাতে নিজের অবস্থান, সমাজের উন্নয়ন, জবাবদিহিতা চলে আসে যা আমাকে আমার প্রতিটা কাজকে সুন্দর এবং পরিছন্ন করতে সহযোগীতা করে।আমি মনে করি সামাজিক, রাজনৈতিক,প্রশাসন, ও ধর্মীও দিক দিয়ে চলোমন এই অনৈতিকতা সমস্যর সমাধান এ বা জনসাধারণ সচেতনতা বৃব্ধি করার মধ্যদিয়ে অনৈতিকতার প্রভাব থেকে জাতীয় উন্নয়ন অব্যাহত করা সম্বব। আমি আমার মন্ত্যবে সমস্তরকম ভুল এর জন্য (sorry)।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আহছানউল্লা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ