Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

এতদিনে ঘুম ভাঙল ড. কামালের?

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম | আপডেট : ১২:১০ এএম, ৮ জানুয়ারি, ২০২০

এতদিনে ঘুম ভাঙল আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইনজীবী ড. কামাল হোসেনের। ঐক্যফ্রন্টের প্রধান এই নেতা জানিয়েছেন, কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য প্রয়োজনে আদালতে লড়বেন। তার এই বক্তব্য শুনে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন তিনি এতদিন বেগম জিয়ার মামলায় আদালতে লড়েননি কেন? বেগম জিয়া দীর্ঘ প্রায় দুই বছর ধরে কারাগারে। তার জামিন নিয়ে যা হয়েছে তা দেশবাসী জানে। তিনি কি এতদিন ঘুমিয়ে ছিলেন? তাঁর দল বিএনপির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছে গণফোরাম। ৫০০ লোকের সমাবেশে বক্তৃতা করতে অভ্যস্ত ড. কামাল হোসেন বিএনপির বদৌলতে এখন লাখ লাখ নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে বক্তৃতা করেন। অথচ তিনি এতদিন বেগম জিয়ার মুক্তির লক্ষ্যে আদালতে দাঁড়ানোর প্রয়োজন বোধ করেননি?

গতকাল ড. কামাল হোসেনের মতিঝিলস্থ চেম্বারে খালেদা জিয়ার অসুস্থতা বিষয়ে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শুরু হয়। বৈঠক শেষে চেম্বারে জরুরি সংবাদ সম্মেলন করেন ড. কামাল হোসেন। এ সময় খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য মামলা লড়তে তিনি আদালতে যাবেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল হোসেন বলেন, যদি প্রয়োজন হয়, অবশ্যই আমি উদ্যোগ গ্রহণ করব। এটা তো সংবাদ মাধ্যমে বলার কথা না। অবশ্যই পেশাগত কারণে আমি কোর্টে যাব। তিনি আরো বলেন, আমরা স্পষ্ট ভাষায় উল্লেখ করতে চাই যে, খালেদা জিয়ার কোনো অনভিপ্রেত দুর্ঘটনা হলে তার সমুদয় দায়দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে।

সংবিধানের অন্যতম প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, অতি স¤প্রতি মিডিয়ায় প্রকাশিত তথ্যের আলোকে আমরা অবগত হয়েছি যে, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে মারাত্মক অসুস্থ অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। তার স্বাস্থ্যের গুরুতর অবনতিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আমরা গভীর উৎকণ্ঠা ও উদ্বেগ প্রকাশ করছি। তিনি আরো বলেন, বিচারকরা ম‚ল একটা জিনিসকে মিস করেছেন। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে যে মেডিক্যাল রিপোর্ট দেয়া হয়েছে, সেটা অসম্প‚র্ণ রিপোর্ট। কারণ, এই রিপোর্ট তৈরিতে কোনো মানসিক বিশেজ্ঞষ ছিল না। খালেদা জিয়ার ম‚ল চিকিৎসা হচ্ছে ফিজিওথেরাপি। এ বিষয়ে কোনো বিশেষজ্ঞ ছিলেন না। মেডিক্যাল বোর্ডের রিপোর্টে তার যতগুলো রোগের কথা বলা হয়েছে, সেগুলোর কোনো রিপোর্টও আদালতে দাখিল করা প্রতিবেদনের সঙ্গে দেয়া হয়নি। এ রকম অসম্প‚র্ণ রিপোর্ট দেখে মামলার কাজ ডিসমিস করে বিচারকরা ভুল কাজ করেছেন। মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন পাওয়াতে কোনো বাধা নেই।

খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে টালবাহানায় নিন্দা জানিয়ে ড. কামাল হোসেন বলেন, বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণসহ অবিলম্বে তার মুক্তির দিতে হবে। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন ড. কামাল। এর তীব্র নিন্দা জানান তিনি। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় যে রিপোর্ট দিয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য এখন আন্দোলন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।

ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, নাগরিক ঐক্যের আহŸায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরাম নেতা অধ্যাপক আবু সাইয়িদ, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, বিকল্প ধারার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. নুরুল আমিন বেপারী, গণফোরামের অ্যাডভোকেট মহসীন রশীদ, মোস্তাক আহমেদ, শফিউদ্দিন স্বপন, শহীদ উল্লা কায়সার, মমিনুল হক, ডা. জাহিদ হোসেন, শাহ আহমেদ বাদল প্রমুখ।

দু’দিন আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেন তার স্বজনরা। তখন বেগম জিয়ার বোন বেগম সেলিমা ইসলাম হাসপাতালে সাংবাদিকদের বলেন, খালেদা জিয়া হাত সোজা করতে পারছেন না। তার হাত বাঁকা হয়ে গেছে। হাতের আঙুল বাঁকা হয়ে গেছে, খুবই খারাপ অবস্থা এবং দুই হাঁটু অপারেশন করা হয়েছে। হাঁটুতেও ব্যথা, হাঁটু ফুলে গেছে- তিনি পা ফেলতে পারছেন না। এমতাবস্থায় সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সঠিক চিকিৎসা না হলে তিনি বাঁচবেন কিভাবে এমন প্রশ্নও তোলেন সেলিমা ইসলাম।



 

Show all comments
  • তাইজুল ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:২৬ এএম says : 0
    আল্লাহ যেন বেগম জিয়াকে দীর্ঘ হায়াত দান করেন
    Total Reply(0) Reply
  • শাহে আলম ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:২৭ এএম says : 0
    খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য এখন আন্দোলন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • পারভেজ ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:২৮ এএম says : 0
    কিছু বলার ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না
    Total Reply(0) Reply
  • Shahzada Mahin Bepari ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:২০ এএম says : 0
    ডঃ কামাল সাহেবের এখনো প্রয়োজন বোধে হয়নি।
    Total Reply(0) Reply
  • Ayat Fatima ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:২৫ এএম says : 0
    বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণসহ অবিলম্বে তার মুক্তির দিতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Rafiq Islam ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৫১ এএম says : 0
    আপনার জন্য দোয়া করি ।
    Total Reply(0) Reply
  • Farid Ahmed ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩৮ এএম says : 0
    With full of respect I cordially pray to our Almighty Allah about her good health .. May Almighty Allah will bless her . Hopefully she will be cure very soon . Ameen . Summa , Ameen .
    Total Reply(0) Reply
  • shankar paul ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:১৪ এএম says : 0
    Turn out synthetic leadership into organic.
    Total Reply(0) Reply
  • shaik ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ৪:৩৪ এএম says : 0
    Akhon o J jabay tar Nish choyota kothai?? Onader tho Begum Zia'r Sathe dekha korar o kotha selo? aj porjonto Jan ni. R bolsen Jodi Proyogon Hoi, 2 bochor Jail a B, Zia, akhon o Proyojon hoi nai? Kobay Hobay??
    Total Reply(0) Reply
  • সাঈদ, মুক্তিযোদ্ধা ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:১১ এএম says : 0
    Khaleda is a convicted prisoner. She can be released only by the court. Why didn't you guys fight for her bail for this long period? You guys wanted to bring the politics in your favor with this Khaleda issue and now can realize that will not work and that's why now looking for a new way. Too late, Too late, Too late.
    Total Reply(0) Reply
  • ** হতদরিদ্র দীনমজুর কহে ** ৮ জানুয়ারি, ২০২০, ৯:২৭ এএম says : 0
    ডঃকামাল সাহেব যদি জামিন প্রার্থনা করেন তা হলে জামিন হলেও হতে পারে!তবে খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য যে ধরনের জোড়ালো আন্দলন প্রয়োজন ছিলো সে আন্দলন করতে বিএনপি সম্পুর্ন ব্যার্থ হয়েছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঐক্যফ্রন্ট


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ