Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ইজতেমার নিরাপত্তায় হেলিকপ্টার-ড্রোন

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব ডিজি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

এবারের বিশ্ব ইজতেমাকে ঘিরে নিরাপত্তা জোরধার করেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যরাও মাঠে কাজ করবে। শুধু তাই নয়, র‌্যাবের পক্ষ থেকে হেলিকপ্টার এবং ড্রোনের মাধ্যমে ইজতেমায় আসা মানুষের সার্বক্ষনিক নজরদারি করা হবে। গতকাল দুপুরে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ সংবাদ সম্মেলন করে এমন তথ্য জানানা।

রাজধানীর কাওরান বাজারস্থ র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আগামীকাল (আজ) থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা। তবে ইজতেমাকে ঘিরে তাবলিগ জামাতের বিরাজমান দুই গ্রুপের মাঝে কোনো ধরনের সংঘাতের সম্ভাবনা নেই। তারপরও পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যরা মাঠে কাজ করবে। মুসল্লিদের নিরাপত্তার জন্য প্রাইভেট কার, মোটারসাইকেল ও বোট পেট্রোলিংয়ের মাধ্যমে নজরধারি রাখা হবে। এছাড়াও তুরাগ নদীতে স্পিড বোর্ড নিয়ে টহল দেওয়া হবে। র‌্যাবের প্রধান বলেন, শুক্রবার ফজরের নামাজের পর আম বয়ানের মধ্যমে বিশ্ব ইজতেমা শুরু হবে। ইজতেমায় অংশ নিতে ইমোতধ্যে ইজতেমা মাঠে মুসল্লিরা জড়ো হয়েছে। গত বুধবার রাতেই প্রায় সাড়ে চার লাখের বেশি মুসল্লি তুরাগ নদীর তীরে অবস্থান নিয়েছে। শুধু তাই নয়, এবারের ইজতেমায় ২৭টি দেশ থেকে উল্লেখযোগ্য বিদেশী মুসল্লি এসেছেন।
এবারের ইজতেমাও দুই ধাপে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রথম ধাপে বাংলাদেশিদের জন্য ৯১টি খিত্তা এবং বিদেশি মুসল্লিদের জন্য একটি খিত্তা করা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে থাকবে ৮৭টি খিত্তা।

বিশ্ব ইজতেমা আমাদের মর্যাদার বিষয় জানিয়ে তিনি বলেন, এখানে নিরাপত্তার একটি বড় বিষয় রয়েছে। দুই গ্রুপের মধ্যে কোনো ধরণের সংঘাত বা মারামারি না হয় সেজন্য আমরা সর্তক আছি। সরকারের সাথে দুই পক্ষের নেতাদের যোগাযোগ আছে। একাধিক মিটিং ও আলোচনা হয়েছে। প্রত্যেকে তাদের লিমিট দায়িত্ব সম্পর্কে সর্তক আছেন। তিনি বলেন, এক পক্ষ ইজতেমা শেষ হওয়ার পরে আরেক পক্ষ ইজতেমা শুরু করবে। স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণভাবে ইজতেমা মাঠ একে অপরের কাছে হস্তান্তর করবে। আগামী ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব সদস্যরা পুরোদমে মাঠে থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, খিত্তার ভেতর এবং বাইরে প্রয়োজনীয় সংখ্যক সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সদস্য মোতায়েন করা হবে।

নিরাপত্তার স্বাথে র‌্যাবের কন্ট্রোল রুম রাখা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ইজতেমা ময়দানে খিত্তা ও আশপাশ এলাকায় সিসিটিভি বসানো হয়েছে। বম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের পাশাপাশি, ডগ স্কোয়াড এবং ড্রোন থাকবে।

এছাড়াও গুজব রোধে ফেক এবং গুজব নিউজ শেয়ার করা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়ে র‌্যাব প্রধান বলেন, ফেক এবং গুজব নিউজ শেয়ার করার কারণে অনেক সময় বড় ধরণের বিপদ চলে আসতে পারে। তাই যাচাই না করে কোন নিউজ শেয়ার দিবেন না।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হেলিকপ্টার-ড্রোন
আরও পড়ুন