Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ফুলবাড়ীতে বালু মহলের জায়গা নির্ধারণ করতে গিয়ে ভূমি কর্মকর্তা লাঞ্ছিত

৬ হামলাকারীর বিরুদ্ধে মামলা

ফুলবাড়ী(দিনাজপুর) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০৩ পিএম

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে এক বছরের জন্য বালুমহল ইজারা নিয়ে ৯মাস কেটে গেলেও, বালু উত্তোলন করতে পারেনি ইজারাদার।

এদিকে বালু মহলের জায়গা উদ্ধার করতে গিয়ে স্থানীয় ভূমি দস্যুদের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছে সহকারী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৬ হামলাকারীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন হামলার শিকার শিবনগর ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা রুহুল আমিন।

গত (৭জানুয়ারী) বুধবার বিকালে উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদ মৌজার শাখা যমুনা নদীতে বালু মহলের জায়গা নির্ধারণের সময় এই হামলার ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় ওই দিন রাতে ৬ হামলাকারী শিবনগর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদ গ্রামের মৃত আব্দুল বশিরের ছেলে খলিল (৫৫), মোঃ নকিবুল(৪০), একই এলাকার আব্দুল সোবহান ওরফে বুদার ছেলে মোঃ সবুজ (৩৫), আব্দুল মজিদের ছেলে মোঃ লুৎফর(৩৪), ইউনুছের ছেলে ছলিম(৩৭) এবং পলি শিবনগর এলাকার মৃত ইসলামের ছেলে মোঃ বুলবুল(৪২) এর নাম উল্লেখ করে ফুলবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। যার মামলা নং-০৬,তারিখ-০৭/০১/২০২০ ইং। তবে পুলিশ এখনো কাউকে আটক করতে পারেনি।
বালুমহল ইজারাদার ইমরুল হুদা চৌধুরী বলেন, উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের ৩টি তফশিলে বাংলা ১৪২৬ সালের এক বৈশাখ থেকে ৩০চৈত্র পর্যন্ত ১বছরের জন্য ৩৭লক্ষ ৪৪হাজার টাকা মূল্যে ফুলবাড়ী শাখা যমুনা নদীর বালুমহাল ইজারা নেন। সেখানে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক শিবনগর ইউনিয়নের গঙ্গাপ্রসাদ মৌজার ৭৫৭ দাগে ২একর ৪৭শতাংশ জমি বালুমহালের জন্য নির্দিষ্ট করে উল্লেখ করা থাকলেও, তিনি গত ৯মাস যাবত ইজারাকৃত ঘাটটি থেকে বালু উত্তোলন করতে পারেনি। তিনি বলেন ওই জায়গায় যতবার বালু উত্তোলন করতে গিয়েছেন ততবারই স্থানীয় কিছু অসৎ ব্যক্তি নানা ভাবে বিশৃংখলা সৃষ্টি করে আসছে। এতে করে তিনি আর্থিক ক্ষতির শিকার হয়েছেন।
এই বিষয়ে শিবনগর ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা (তহশিলদার) রুহুল আমিন বলেন, গত ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর বালু মহল ইজারাদার ইমরুল হুদা চৌধুরীর একটি আবেদনের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চেীধুরীর নির্দেশে তিনি (শিবনগর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী রুহুল আমীন) ও সার্ভেয়ার দেবাশীষ চন্দ্র কর্মকার গঙ্গাপ্রসাদ মৌজার ৭৫৭ দাগের ২একর ৪৭ শতক জমি বালুমহালের সীমানা নির্ধারণের জন্য গেলে, স্থানীয় কতিপয় ভূমি দস্যু দলবদ্ধ হয়ে তাদের উপর হামলা করে শারিরিকভাবে লাঞ্চিত করে।এই ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুমতিক্রমে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী বলেন সরকারী কাজে বাধা ও সরকারী কর্মকর্তাদের লাঞ্চিত করায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ