Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার , ২৭ জানুয়ারী ২০২০, ১৩ মাঘ ১৪২৬, ০১ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

২৪ বছরের রেকর্ড ভঙ্গ, রাস্তাঘাট সয়লাব

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

বিরামহীন বৃষ্টিপাতে সংযুক্ত আরব আমিরাত ২৪ বছরের রেকরেকর্ড ভেঙেছে। বিগত বছরগুলোর মধ্যে এবারেই সর্বাধিক পরিমাণে বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে দেশটির জাতীয় আবহাওয়া কেন্দ্র। কেন্দ্রটি জানিয়েছে শুক্রবার ও শনিবার দু’দিনের অবিরাম বৃষ্টিপাতের পরে আল আইনের খতম আল শাকলা ১৮৪.৪ মি.মি বৃষ্টির পানি রেকর্ড করেছে। প‚র্ববর্তী রেকর্ডটি ছিল ১৯৯৬ সালে শারজাহের খোর ফাক্কানে রেকর্ড করা ১৪৪ মি.মি বৃষ্টি। শুধুমাত্র বৃষ্টিপাত নয়, সাথে দমকা হাওয়া, মেঘের গর্জন ও বজ্রপাতও ছিল। বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে অস্বাভাবিক ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে শুধুমাত্র দুবাইতে ছোট বড় প্রায় ১৯০০ ট্রাফিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ৫৫টি দুর্ঘটনা বড়ধরনের এবং বাকিগুলো ছিল ছোট। দুবাই পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার সাইফ মাহির আল মাজরোয়ী সমস্ত গাড়িচালককে খারাপ আবহাওয়ার পরিস্থিতিতে সতর্কতার সাথে গাড়ি চালনার আহŸান জানিয়ে ট্রাফিকের দিকনির্দেশনা দিয়েছেন এবং পাশাপাশি আবহাওয়ার সংবাদের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তিনি ধীরে ধীরে নিরাপদে গাড়ি চালানো এমনকি বেশী বৃষ্টির সময় রাস্তার পাশে গাড়ি থামানোর কথাও বলেন। এতে করে দুর্ঘটনার সংখ্যা হ্রাস করতে সহায়ক হবে বলে জানান। কয়েকদিনের ভারী বৃষ্টিপাতে ডুবে গেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই বিমানবন্দরের একাংশ। বন্যায় ব্যাহত হচ্ছে বিমানবন্দরের কার্যক্রম। শনিবার এক টুইটে সর্বশেষ এই পরিস্থতির কথা নিশ্চিত করেছে দুবাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের এক টুইট বার্তায় বলা হয়, বন্যার পানি বিমানবন্দরের ভেতরে ঢুকে পড়ায় স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এ কারণে শনিবার বহির্গামী সব ফ্লাইটের সময় পেছানো ও স্থগিত করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই বন্যার ছবি ছড়িয়ে পড়ে। তাতে দেখা গেছে, বিমানবন্দরের রানওয়ে বন্যার পানিতে ডুবে আছে। বিমানবন্দরের কার্যক্রম যত দ্রæত সম্ভব আবারও স্বাভাবিক করার আশ্বাস দিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। তবে দেশটির আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী কয়েকদিনও ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে সেখানে। শুধু দুবাই না আবুধাবী, শারজাহ, রাস আল খাইমাতসহ অন্যান্য প্রদেশ ও শহরগুলোতে রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টিপাতে যানবাহনগুলোর স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হয়েছে। রাস্তাঘাট জলজট ও জলমগ্ন থাকায় অনেক এলাকার স্কুল কলেজ রবিবার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। টুইটার, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন