Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ২২ জানুয়ারী ২০২০, ০৮ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

পথসভা রূপ নিচ্ছে জনসভায়

তাপস-আতিকের জমজমাট প্রচারণা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৫ এএম

জমজমাট প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগের দুই মেয়র প্রার্থী। সকাল থেকে রাত পথে ঘাটে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তারা। গুটি কয়েক মানুষ নিয়ে প্রচারণা শুরু করলেও তাতে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগণ যুক্ত হয়ে জন সমাগমে পরিণত হচ্ছে। পথসভাগুলো জনসভায় রুপ নিচ্ছে।

গতকাল রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানার ৫৫, ৫৬ ও ৫৭ নং ওয়ার্ডে নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে প্রচারণা চালান ব্যারিস্টার মেখ ফজলে নূর তাপস। এ সময় তিনি বলেন, মেয়র নির্বাচিত হলে প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টাই নাগরিক সেবায় নিয়োজিত থাকবেন। অবহেলিত এ কামরাঙ্গীরচর যেন আধুনিক ঢাকার রূপ পায়, আমরা সে লক্ষ্যে কাজ করবো। আমি নৌকা মার্কার প্রার্থী হিসেবে আপনাদের কাছে এসেছি। আপনারা সুযোগ দিলে আমরা আমাদের প্রাণের, ভালোবাসার ঢাকাকে উন্নত ঢাকা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাবো।

ব্যারিস্টার তাপস তার উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রসঙ্গে বলেন, ঢাকাকে উন্নত করতে আমরা পাঁচ ধাপের মহাপরিকল্পনা নিয়েছি। প্রথমত আমাদের ঐতিহ্য ঢাকা, দ্বিতীয়ত আমাদের সুন্দর ঢাকা, তৃতীয়ত সচল ঢাকা, চতুর্থত সুশাসিত ঢাকা এবং সর্বশেষ উন্নত ঢাকার করা পরিকল্পনা রয়েছে।

গত কয়েক দিনে নির্বাচনী প্রচারণার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, গত চারদিন ধরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের আওতায় বিভিন্ন জায়গায় নির্বাচনী প্রচারণায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে জনগণ এগিয়ে এসেছে এবং আমাদের পরিকল্পনায় ব্যাপক সাড়া দিয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার মানুষ আমরা যারা ঢাকায় বসবাস করি, এ ঢাকা আমাদের সবার। আমরা সবাই ঢাকাবাসী। এ আমাদের প্রাণের শহর। আমরা সবাই মিলে এ শহর আধুনিক এবং উন্নত করবো। সে অঙ্গীকার নিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মাধ্যমে উন্নত ঢাকা গড়ে তুলতে চাই। আমি বিশ্বাস করি আমাদের এ যাত্রায় ঢাকাবাসী ৩০ জানুয়ারি স্বতঃস্ফূর্তভাবে সমর্থন দেবেন।

নৌকা মার্কার প্রার্থী ব্যারিস্টার তাপস বলেন, আমরা নির্বাচিত হলে, পাঁচ বছরের মধ্যে বছরের ৩৬৫ দিন, সপ্তাহের সাতদিন, ২৪ ঘণ্টা, প্রতিদিনের ৮৬ হাজার ৪০০ সেকেন্ড নাগরিক সেবায় নিয়োজিত থাকবো। নগরবাসীর জন্য নগরভবন ২৪ ঘণ্টাই সেবা দেওয়ার জন্য খোলা থাকবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্লীডর সদস্য মুকুল বোস এবং হাজি আবুল হাসনাত, কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, ঢাকা দক্ষিণের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অপু উকিলসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা আতিকুল ইসলামের
গতকাল রাজধানীর আগারগাঁও তালতলা থেকে প্রচারণা শুরু করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। এরপর লালমাটিয়া, তাজমহল রোড, মোহাম্মদপুর, শ্যামলীতে ১৩, ২৮, ২৯, ৩০, ৩২ নং ওয়ার্ডে প্রচারণা চালান তিনি। এ সময় হাজার হাজার মানুষের অংশগ্রহণে রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়।

পথসভায় আতিকুল ইসলাম বলেন, গত নয় মাস যাবত একটি সুস্থ সুন্দর ঢাকা গড়ার জন্য কাজ করেছি। জলাবদ্ধতা নিরসনে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছি। রাস্তায় গাড়ি পার্কিং ও পথচারীদের বিনোদনের ব্যবস্থা করেছি। তিনি বলেন, মোহাম্মদপুরের ৭টি খেলার মাঠকে আধুনিকায়ন করা শুরু হয়েছে।

এ সময় তিনি বলেন, যুব সমাজকে রক্ষায় মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করতে হবে। যুব সমাজকে খেলাধূলায় ব্যস্ত রাখতে হবে। আতিক বলেন, নির্বাচিত হলে, মেয়রসহ প্রত্যেক কাউন্সিলরকে প্রতিবছর সম্পদের হিসেব দিতে হবে। কাজের জন্য জবাদিহিতা করতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি, সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাবিব হাসান প্রমুখ।

যুবলীগের গণসংযোগ ও পথসভা
গতদকাল যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরম ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর নেতৃত্বে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এর সমর্থনে লালবাগ, আজিমপুর বাসস্ট্যান্ডস্থ আজিমপুর কলোনী কমিউনিটি সেন্টারে সংক্ষিপ্ত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এলাকার বিভিন্নস্থানে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের কাছে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করেন নেতারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আনোয়ারুল ইসলাম, সাবেক সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য শরিপুল ইসলাম দুর্জয়, হাবিবুর রহমান পবন, সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা মৃনাল কান্তি জোয়ার্দ্দার, আমির হোসেন, যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনউদ্দিন রানা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, সহ-সভাপতি ও নব-নির্বাচিত কাউন্সিলর আনোয়ার ইকবাল সান্টু, যুগ্ম-সম্পাদক তাজভীরুল হক অনু, জাফর আহমেদ রানা প্রমুখ।

এদিকে কাউন্সিলর প্রার্থীরাও প্রচারণা চালাচ্ছেন। প্রচারণা শুরুর পর থেকে কয়েক জায়গায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় ঘটেছে। ঢাকা দক্ষিণের ৯ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের কাউন্সির প্রার্থী মোজাম্মেল হক ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাচ্ছেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগের নেতাদের প্রচারণায় মুখর তার নির্বাচনী কার্যক্রম।
হামলা ও পোস্টার ছিড়ে ফেলার ঘটনাও ঘটছে। ঢাকা উত্তরের ৪৮ নং ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আলী আকবরের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেছে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মাসুদুজ্জামান মিঠু, এমনটাই অভিযোগ করেছেন আলী আকবর।

১ নং ওয়ার্ডে বিএনপির প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমানের পোস্টার লাগানোর ভ্যান ছিনতাই হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। তিনি বলেন, পোস্টার ছিড়ে ও নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আফছার উদ্দিন খানের লোকজন আমাদের নির্বাচনী কাজে বাধা প্রদান করছে। ##



 

Show all comments
  • Aysha Islam Mim ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১২ এএম says : 0
    কি দরকার এমনিতেই তো পাশ হয়ে যাবে
    Total Reply(0) Reply
  • Mehotab Hakim Neel ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:১২ এএম says : 0
    নির্বাচনের নামে দেশের টাকা নস্ট না করাই ভালো। সিলেকশন করে দেয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি
    Total Reply(0) Reply
  • রিমন ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩২ এএম says : 0
    তারা ক্ষমতাসীন দল , তাদের পথ সভা তো জনসভা হবেই
    Total Reply(0) Reply
  • লোকমান ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩৩ এএম says : 0
    তাদের পথসভায় ভয়েও জনগণ চলে আসে। কারণ তারা জানে এরাই জয়লাভ করবে।
    Total Reply(0) Reply
  • পারভেজ ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩৩ এএম says : 0
    যারা আসে তারাও সবাই এদেরকে ভোট দিবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • তফসির আলম ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩৪ এএম says : 0
    যা দেখা যায় তা সব সময় সত্যি নয়, আর যার সত্যি তা সব সময় দেখা যায় না।
    Total Reply(0) Reply
  • বাবুল ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩৪ এএম says : 0
    শুভ কামনা রইলো তাপস ও আতিক ভাইয়ের জন্য
    Total Reply(0) Reply
  • শুভ্র ভৌমিক ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৩৫ এএম says : 1
    আপনারাই বিজয়ী হবেন তাই অগ্রিম শুভেচ্ছা জানাচ্ছি
    Total Reply(0) Reply
  • Md Azadul Islam ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:৫৬ এএম says : 0
    সব নাগরিকের সমান সূযোগ দিয়ে, ভোট দানের ভয় ভিতি না থাকলে তবেই বুঝা যাবে পথসভা জনসভা হয় কিনা! আর এমনিতে মনোনীত মেয়র। সেখানে আর এত কি?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিটি করপোরেশন নির্বাচন

২২ জানুয়ারি, ২০২০
২২ জানুয়ারি, ২০২০
২২ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ