Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬, ০৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

গত বছর ১৮৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে সউদী আরব

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:২৭ এএম

সউদী আরব গত বছর ১৮৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। যা গত ৬ বছরে সর্বোচ্চ। সোমবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থা রিপ্রিভ। এদের মধ্যে তিনজনই কম বয়সী যারা গণতন্ত্রকামী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিল।

বিবৃতিতে বলা হয়, ২০১৯ সালে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তদের মধ্যে ৮৮জন সউদী নাগরিক, ৯০জন বিদেশি ছিলেন। অপর ৬ জনের জাতীয়তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ২৩ এপ্রিল এক দিনেই কার্যকর হয় ৩৭ জনের মৃত্যুদণ্ড। এদের মধ্যে ৩ জন অপরাধ সংগঠনের সময় ছিলেন শিশু। চলতি বছর এরই মধ্যে ৪ জনের মৃত্যুদন্ডের কথাও জানিয়েছে সংগঠনটি।
এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সউদী আরবে ২০১৯ সালে ১৮৪ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরকে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে নির্যাতন করার পর শিরশ্ছেদ করে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। ওই কিশোরের অপরাধ হচ্ছে সে হোয়াটসঅ্যাপে বিক্ষোভ নিয়ে বার্তা দিয়েছিল।

সন্ত্রাসবাদে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় আব্দুল করিম আল হাওয়াজ নামে ২১ বছর বয়সী এক তরুণ এবং আরও ৩৬ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। গত বছরের এপ্রিলের এক দিনেই এক সঙ্গে এসব লোকজনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর হয়।

এদের মধ্যে একজনকে ক্রুশবিদ্ধ করে হত্যা করা হয় এবং তার মরদেহ অনেক সময় পর্যন্ত সেভাবেই রেখে দেওয়া হয়। এ ধরনের অপরাধ যেন অন্যরা না করতে পারে সেজন্য সতর্কতা হিসেবেই এমন ব্যবস্থা নেয় কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরকে বিমানের ফ্লাইট থেকে আটক করা হয়। সে ওয়েস্টার্ন মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছিল। এই অপরাধেই তাকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক আইন ও মৃত্যুদন্ড কার্যকরের বিধান অনুযায়ী, ১৮ বছরের নিচে কোনো ব্যক্তিকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া নিষিদ্ধ। মৃত্যুদন্ড কার্যকর হওয়াদের মধ্যে একজন ছিলেন সমকামী। এছাড়া আরও ৩৭ জন সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত থাকার অপরাধ স্বীকার করে নেওয়ায় তাদের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে।

পরিসংখ্যান বলছে, মাদক পাচারের অভিযোগে ৮২ জন এবং খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে ৫৭ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছে। মৃত্যুদন্ড কার্যকর হওয়া ১৮৪ জনের মধ্যে ৮৮ জন সউদীর নাগরিক, ৯০ জন বিদেশি নাগরিক এবং বাকি ছয়জনের পরিচয় জানা যায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী আরব

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
৮ জানুয়ারি, ২০২০
৭ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ