Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

গৌরনদীর নলচিড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫ ছাত্র বহিষ্কার

স্কুলব্যাগে ছুরি, চাপাতি, লোহার পাইপ

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৫ জানুয়ারি, ২০২০, ৬:৫২ পিএম

সিনিয়র-জুনিয়র নিয়ে দ্বন্দ্বে মারামারির উদ্দেশ্যে স্কুল ব্যাগে করে ছুরি, চাপাতি, লোহার পাইপ নিয়ে বিদ্যালয়ের ক্লাসে প্রবেশের অভিযোগে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার নলচিড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ নবম ও দশম শ্রেণীর ৫ ছাত্রকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানাগেছে, ওই বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ও উপজেলার নলচিড়া গ্রামের মোঃ আতাহার আলী জমাদ্দারের ছেলে মোঃ শাহাদাত হোসেন ও একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র ও উপজেলার কান্ডপাশা গ্রামের মোঃ শাহ আলম সেপাইয়ের ছেলে নাঈম সেপাইয়ের মধ্যে সিনিয়র, জুনিয়র নিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে স্কুল ছুটির পর দ্বন্দ বাধে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরই জের ধরে ওই দুই শিক্ষার্থীর সমর্থক একই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্র মোঃ রাসেল হাওলাদার, এসএসসি পরীক্ষার্থী মোঃ মেহেদী হাসান জিয়া, দশম শ্রেনীর ছাত্র হা-মীম মৃধা মারামারির উদ্দেশ্যে তাদের স্কুলব্যাগে ভরে ছুরি, চাপাতি, লোহার পাইপ নিয়ে স্কুলের ক্লাসে প্রবেশ করে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নুরুল আলম জানান, ‘ঘটনা টের পেয়ে সকাল ১০টার পরপরই আমি ও আন্যান্য শিক্ষক গন ক্লাসে গিয়ে শিক্ষার্থীদের স্কুলব্যাগ তল্লাশী চালাই। এ সময় আমরা নবম শ্রেনীর ছাত্র মোঃ রাসেল হাওলাদারের স্কুলব্যাগ থেকে একটি ছুরি, এসএসসি পরীক্ষার্থী মোঃ মেহেদী হাসান জিয়ার ব্যাগ থেকে একটি লোহার পাইপ, দশম শ্রেনীর ছাত্র হা-মীম মৃধার ব্যাগ থেকে একটি চাপাতি উদ্ধার করি। এরপর আমরা বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও নলচিড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ গোলাম হাফিজ মৃধাকে ঘটনা জানাই এবং ঘটনার সাথে জড়িত শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের নিয়ে এক জরুরি বৈঠকে বসি। বৈঠক শেষে দুপুর ১টার দিকে ঘটনার সাথে জড়িত ওই পাঁচ শিক্ষার্থীকে বিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করা হয়। বিদ্যালয়ে শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখতে বৈঠকে তাৎক্ষনিকভাবে বহিস্কারের এ সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়’ বলেও জানান প্রধান শিক্ষক।

অপরদিকে বহিস্কৃত শিক্ষার্থীরা দাবি করেছেন, ‘তারা ষড়যন্ত্রের শিকার, তাদেরকে ফাঁসিয়ে বহিস্কার করাতে তৃতীয় পক্ষের কেউ তাদের স্কুলব্যাগে এসব অস্ত্র ঢুকিয়ে রেখে শিক্ষকদেরকে খবর দিয়ে তা উদ্ধার করিয়েছে’।

বহিস্কৃত শিক্ষার্থীদের অভিযোগকে অবান্তর উল্লেখ করে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ গোলাম হাফিজ মৃধা বলেন, ‘বিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে আমাদেরকে এ কঠিন পদক্ষেপটি নিতে হয়েছে’।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বহিষ্কার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ