Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

শরিয়ত বয়াতির ফাঁসির দাবিতে টাঙ্গাইলে সংবাদ সম্মেলন

টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

বয়াতি শরিয়ত সরকার কর্তৃক কুরআন হাসিদের অপব্যাখ্যা ও বিকৃতি, নিজ থেকে কুরআন আয়াত বানানো, ভুল ও মনগড়া তথ্য পরিবেশন, নবীদের সর্ম্পকে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য এবং আলেম ওলামাদেরকে নিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে টাঙ্গাইল জেলা কওমী ওলামা পরিষদ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে শরিয়ত বয়াতির ফাঁসির দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মাওলানা ফরিদুল ইসলাম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আল্লাহ এবং রাসূলের শান, মান ও ইজ্জত রক্ষার্থে সংসদে বøাসফেমি আইন পাশ করার দাবি জানানো হয়। সে সাথে জাতীয় পাঠ্যপুস্তকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন সব লেখা সংশোধন করা, বয়াতি বাউল সম্প্রদায়, গায়ক গায়িকা, এবং নাটক নির্মাতা সকলের প্রতি সরকারের পক্ষ থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন নাটক, সিনেমা ও গান যাতে কেউ না করে তার জন্য আহবান জানানো হয়। প্রয়োজনে আইন সংশোধন করে হলেও ইসলাম বিদ্বোষী শরিয়ত সরকারের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদÐ দাবি করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল জেলা কওমী ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলা আব্দুল আজিজ, ধুলেরচর মাদরাসার প্রধান মুফতি আব্দুর রহমান, টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ শামসুজ্জামান, মুফতি শামছুল হক, মাওলানা আব্দুল্লাহ যুবাইরসহ বিভিন্ন মসজিদের ইমামগণ।
জানা যায়, গত ২৪ ডিসেম্বর রাতে ঢাকার ধামরাই উপজেলার রৌহাট্টেক এলাকায় অবস্থিত পীর হযরত হেলাল শাহ্ পীরের ১০ম বাৎসরিক পালা গানের অনুষ্ঠানে শরিয়ত বয়াতি ইসলাম ধর্ম ও নবী রাসূল নিয়ে শরীয়ত বিরোধী ভুল ব্যাখা দিয়ে গান করেন। এ সময় তিনি ইসলামের মধ্যে গান বাজনা হারাম, কোরআনে কোথাও উল্লেখ নাই বলে দাবি করেন। এ বিষয়ে প্রমাণ দিতে পারলে ৫০ লাখ টাকা পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফাঁসি


আরও
আরও পড়ুন