Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

আমেরিকান সৈন্যদের খরচ বাবদ ৫০০ মিলিয়ন ডলার দিল সউদী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০২০, ২:৫৭ পিএম

সউদী আরবে অবস্থানরত মার্কিন সেনাদের খরচ বাবদ গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রকে ৫০০ মিলিয়ন ডলার দিল দেশটি। খবর মিডল ইস্ট মিরর’র। প্রতিরক্ষা ব্যয় নিয়ে দু’দেশের মধ্যে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানিয়েছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সদরদফতর পেন্টাগনের মুখপাত্র কমান্ডার রেবেকা রেবারিচ মিডলইস্ট আই-কে এ কথা জানান।
তিনি বলেন, এই অর্থ প্রদান আঞ্চলিক নিরাপত্তা সহযোগিতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও সউদী আরবের মধ্যে ব্যয় ভাগাভাগির অংশ হিসেবে ‘প্রথম কোনো অবদান’।
রেবারিচ শুক্রবার বলেন, ‘গত আট মাস ধরে মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপক নিরাপত্তা হুমকির জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বাড়াতে সেখানে মার্কিন সেনা মোতায়েন করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং সউদীর স্পর্শকাতর সামরিক ও বেসামরিক স্থাপনার আকাশ ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা বাড়ানো হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘এই কর্মযজ্ঞের ব্যয় মেটাতে সউদী সরকার আর্থিক সহযোগিতার বিষয়ে একমত হয়েছে এবং প্রথমবারের মতো আর্থিক অনুদান দিয়েছে।’
ফক্স নিউজ-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, সউদী আরব ইতোমধ্যে ব্যাংকে ১০০ কোটি ডলার জমা দিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ব্যয় কমাতে সউদী আরবের আর্থিক অনুদান প্রদানের ঘটনা এটিই প্রথম নয়। নব্বইয়ের দশকে ইরাকের বিরুদ্ধে ছয় মাসের উপসাগরীয় যুদ্ধের খরচ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রকে ৩৬০০ কোটি ডলার দিয়েছিল সউদী আরব ও কুয়েতসহ উপসাগরীয় দেশগুলো।



 

Show all comments
  • gofran ১৮ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:২১ পিএম says : 1
    সৌদি আরবের লোকেরা তাদের দেশ রক্ষা করতে পারেনা।তাই তারা আমেরিকার বদলী সৈন্য দিয়ে দেশ রক্ষা করছে।তবে এটা সৌদি আরবের জন্য শুভ ফল বয়ে আনবেনা,এতে করে সৌদিআরবের ব্যয় বাড়বে যেমন, ভবিষৎয়ে দেশটা বেদখলীও হয়ে যেতে পারে।সৌদি আরবের উচিৎ এখনি বিদেশী সৈন্য বের করে দিয়ে নিজেদের লোক সেনাবাহিনীতে নিয়োগ দিয়ে সামরিক ব্যয়টা নিজের দেশে রাখুক।এতে তাদের ব্যয়ও কমবে এবং দেশ রক্ষাও নিরাপর্ত্তা অটুট থাকবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন