Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত আজ

মো. দেলোয়ার হোসেন ও মো. হেদায়েত উল্লাহ | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত আজ বেলা ১১টার পর যে কোন সময় অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন ইজতেমা আয়োজকরা। ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের এই আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ বছরের বিশ্ব ইজতেমা। এর আগে গত ১০ জানুয়ারি ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হয়ে ১২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। গত শুক্রবার থেকে দ্বিতীয় পর্বের তিন দিনের ইজতেমা পরিচালনা করছেন দিল্লীর মাওলানা সা’দ কান্ধলভী ও তার অনুসারীরা।

দ্বিতীয় পর্বে ৫৯টি দেশ থেকে ৫ হাজারের অধিক মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। এছাড়া দেশের ৬৪টি জেলার কয়েক লাখ ভারতের মাওলানা সা’দ কান্ধলভী ও বাংলাদেশের তাবলীগ জামাতের আহলে শূরা সদস্য ভাই ওয়াসেকুল ইসলামের অনুসারী মুসল্লি অংশগ্রহণ করেছেন। আজ আখেরি মোনাজাতে ঢাকাসহ আশপাশের জেলাসমূহ থেকে আরো কয়েক লাখ মুসল্লি অংশগ্রহণ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিন গতকাল বাদ ফজর সমবেত মুসল্লিদের উদ্দেশে আ’ম বয়ান করেন ভারতের মাওলানা মুরসালিন। বাদ জোহর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুস সাত্তার, বাদ আসর বয়ান করেন মাওলানা মোশারফ হোসেন ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন ভারতের মাওলানা জামশেদ। আজ বাদ ফজর আ’ম বয়ান করেন ভারতের ভাই ইকবাল হাফিজ। তার বয়ানের বাংলা তরজমা করেন বাংলাদেশের তাবলীগ জামাতের আহলে সূরা সদস্য ভাই ওয়াসেকুল ইসলাম। আখেরি মোনাজাতের পূর্বে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে হেদায়েতি বয়ান শেষে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন দিল্লী মারকাজের শীর্ষ মুরুব্বি মাওলানা জামশেদ। গত শুক্রবার রাতে তাবলীগ জামাতের মুরব্বিদের বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত হয় বলে আয়োজক কমিটি জানান।

যৌতুকবিহীন বিয়ে : গতকাল মূল বয়ান মঞ্চে যৌতুকবিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত না হলেও ইজতেমা ময়দানের বিশেষ কামরায় বর ও কনের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে শতাধিক বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। মাওলানা সা’দ অনুসারীদের আগামী বছরের ইজতেমার সম্ভাব্য তারিখ আখেরি মোনাজাতের পূর্বে ঘোষণা করা হবে বলে জানান আয়োজক কমিটির মুরব্বি মনির হোসেন।

ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনই জর্ডান, লিবিয়া, আফ্রিকা, লেবানন, আফগানিস্তান, ফিলিস্তিন, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, ইরাক, সউদী আরব, ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৫৯ দেশ থেকে প্রায় ৫ সহস্রাধিক মুসল্লি অংশগ্রহণ করেছেন।

আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে পুলিশের পক্ষ থেকে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন জানান, গতকাল মধ্যরাত থেকে আজ বিকেল পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চান্দনা চৌরাস্তা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত, টঙ্গী-কালীগঞ্জ সড়কের মিরেরবাজার থেকে স্টেশন রোড পর্যন্ত, কামারপাড়া থেকে আশুলিয়া পর্যন্ত এবং বিমানবন্দর থেকে টঙ্গী ব্রিজ পর্যন্ত সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে। তিনি বলেন, ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশ এলাকা কড়া নিরাপত্তার মধ্যে রয়েছে। প্যান্ডেলের ভেতরে ও বাইরে মুসল্লি বেশে রয়েছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সহস্রাধিক সদস্য।

পুলিশ কমিশনার বলেন, ইজতেমায় যোগ দেয়া বৃদ্ধ মুসল্লিদের যাতায়াতের জন্য শাটল বাসের ব্যবস্থা থাকবে। ইজতেমাস্থল থেকে চৌরাস্তামুখী ৩০টি এবং মহাখালীমুখী ৩০টি বাস চলাচল করবে। তিনি বলেন, বিশ্ব ইজতেমায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও ভাল রয়েছে। আশা করছি বাকি সময়টুকুও সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হবে।

৭ মুসল্লির মৃত্যু : ইজতেমায় আসা আরো চার মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত দ্বিতীয় পর্বে এ নিয়ে মোট ৭ মুসল্লির মৃত্যু হয়। ইজতেমা ময়দান সংলগ্ন পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাত ও গতকাল পর্যন্ত যে চারজনের মৃত্যু হয়েছে তারা হলেনÑ রংপুরের পীরগঞ্জ থানার ওসমানপুর এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে হুমায়ুন কবির (৬০), ঝিনাইদহ সদরের কালাহাট গোপালপুর এলাকার লুৎফর রহমানের ছেলে আ ফ ম জহুরুল আলম (৬৫), ঢাকার তুরাগ থানার নলভোগ এলাকার ফজলুর রহমানে ছেলে ইলিয়াস মিয়া (৮৫) এবং গাইবান্ধার সাঘাটা থানার কামালেরপাড়া এলাকার ভিলু হাজীর ছেলে আব্দুর সোবাহান (৬৫)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিশ্ব ইজতেমা

১৪ জানুয়ারি, ২০২০
১২ জানুয়ারি, ২০২০
১১ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ