Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ০৩ রজব ১৪৪১ হিজরী

অবশেষে পেছাল ঢাকা সিটির ভোট, সোশ্যাল মিডিয়ায় যে প্রতিক্রিয়া

আবদুল মোমিন | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৯:৩৯ এএম | আপডেট : ১২:১৫ পিএম, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোট গ্রহণের তারিখ অবশেষে পেছানো হয়েছে। নতুন তারিখ অনুযায়ী আগামী ১ ফেব্রুয়ারি দুই সিটিতে ভোট গ্রহণ হবে। সরস্বতীপূজার কারণে ভোট গ্রহণের তারিখ পেছানোর দাবিতে লাগাতার আন্দোলনের মুখে এই সিদ্ধান্ত নিলো ইসি। এনিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নেটিজেনরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা মন্তব্য করেছেন তারা।

শনিবার নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে বৈঠকে শেষে ভোটের তারিখ পরিবর্তনের কথা জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। এর আগে ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ৩০ জানুয়ারি ভোট হওয়ার কথা ছিল। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপি, মেয়র প্রার্থীসহ সবাই পূজার দিনে ভোট গ্রহণের বিপক্ষে ছিল।

তবে নির্বাচন কমিশন শুরু থেকেই ৩০ তারিখে নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে অনড় ছিল। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ইসির এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আন্দোলন করে আসছিলেন।

ভোট পেছানোর প্রতিক্রিয়ায় সুরজিত বিশ্বাস লিখেছেন, ‘‘এ জয় বাংলাদেশের সনাতন সমাজের জয়, এ জয় সম্প্রীতির জয়। অভিনন্দন জানাই সেই সব সনাতনী যোদ্ধাদের যারা যুদ্ধ করে অধিকার নিয়ে এসেছে।অভিবাদন জানাই সে সব মুসলিম ভাইদের যারা এ আন্দোলনে অংশ নিয়েছে। এই ভাবেই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় থাকুক অন্যতম ভালোবাসার দেশ বাংলাদেশে।’’

খন্দকার সায়েম লিখেছেন, ‘‘নির্বাচন কমিশন,,,দয়া করে ভোটারদেরকে ভোট থেকে বঞ্চিত কইরেন না! আওয়ামী লীগ চাইছে এবার যাতে আর রাতে না ভোট হয়,,,এবার দিনেই ভোট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে,।’’

‘‘এটাতে কারো খুশি হওয়ার কিছু নাই বা কোন পক্ষের হার জিতেরও কিছু নেই। জাস্ট নির্বাচন মহল কতৃক নেওয়া সিন্ধান্তের পুনঃবিবেচনা ঘটেছে।আমরা এই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানায়। এখন আমাদের উচিত প্রাত্যাহিক জীবনে ফিরে আসা’’ মন্তব্য রাজ রায় চৌধুরীর।

হাসান হাফিজুর রহমান লিখেছেন, ‘‘গাঁধা জল খায় তবে একটু ঘোলায় ঘোলায় খায়—শুনতে খারাপ লাগলেও বাস্তবতা টা এমন। ইসি কি ক্যালেনডার অনুযায়ী চলে না?
আমরা সামগ্রীক ভাবে সরকারকে দোষ দিবো কেন? সরকারের এই দপ্তরগুলো এমন কান্ডজ্ঞানহীন কাজ করবে আর দোষ হবে সরকারের। আসলে জবাবদিহিতার অভাব থাকলেই এমনটা ঘটে।’’

সুজন লিখেছেন, ‘‘ভাল সিদ্ধান্ত, শুধু শুধু বিতর্ক বাড়ানোর কোন দরকার ছিল না, যাই হোক শাহবাগে রাস্তা বন্ধ করে সকল ধরনের আন্দোলন নিষিদ্ধ করা হোক।’’

‘‘পাবলিক পরীক্ষার মতো এত গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষার তারিখ একেবারে শেষ সময়ে এসে পরিবর্তনের ফলে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে এর একটা বিরুপ প্রতিক্রিয়া হতে পারে’’ এমন মন্তব্য খন্দকার মমিনের।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সোশাল মিডিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ