Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম এলাকা দেশীয় অস্ত্রসহ আটক ১১

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:৫৩ পিএম | আপডেট : ৪:৫০ পিএম, ২০ জানুয়ারি, ২০২০

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ডাকাতির অভিযোগে দেশীয় অস্ত্র ও এক মহিলাসহ ১১ জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। সোমবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বিপিএম ও চৌদ্দগ্রাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) ত্রিনাথ সাহা। আটককৃতরা হচ্ছে; সদর দক্ষিণ মডেল থানার দিশাবন্দ গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীরের ছেলে জহির হোসেন, শহিদুল ইসলামের ছেলে জহিরুল ইসলাম, উত্তর রামপুরের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে কামরুল হাসান সবুজ, আবদুল কুদ্দুসের ছেলে ফেরদৌস হোসেন, মৃত মাহতাব হোসেনের ছেলে কামাল হোসেন, আবদুল কুদ্দুসের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম, ছেলে বুলেট, মোস্তফাপুর গ্রামের আবদুল ওহাবের ছেলে নেয়ামত উল্লাহ, শ্রীমন্তপুরের জয়নাল আবেদীনের ছেলে জুয়েল প্রকাশ আকাশ, চৌদ্দগ্রামের উজিরপুর ইউনিয়নের শুয়ারখিল গ্রামের ফারুক আহম্মেদের ছেলে ফাহিম আহম্মেদ, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের রামপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে সুমন হাসান ও অপর ডাকাত বুলেট।
জানা গেছে, রোববার রাত পৌনে আটটায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রামের বাবুচি বাজার এলাকায় গাড়ির জন্য অপেক্ষায় ছিলেন রংপুর বদরগঞ্জ থানার নাটারাম গ্রামের শাহ আলমের ছেলে শাহীন আলম। কিছুক্ষণের মধ্যে কুমিল্লা-ল-১১-০২৩৬ নম্বারের মোটর সাইকেলযোগে তিনজন ডাকাত তাঁর উপর অতক্রিত হামলা করে। ডাকাতরা শাহীনকে হত্যা চেষ্টাসহ নগদ টাকা ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়। এ সময় তার চিৎকারে মহাসড়কে ডিউটিতে থাকা পুলিশ ধাওয়া করে ডাকাত জহির হোসেন ও জহিরুল ইসলামকে একটি চাকু, লুণ্ঠিত ব্যাগ ও নগদ টাকাসহ আটক করে। অন্যরা পাশ্ববর্তী গ্রামের দিকে পালিয়ে যায়। রাত সাড়ে দশটায় পুলিশ পাশের এলাকায় অভিযান শুরু করে। পলাতক ডাকাত বুলেট অপর সহযোগিদের ফোন করলে তারা ঢাকামেট্রো-চ-১১৩-২২১৭ নম্বরের হাইসে মাইক্রোবাস যোগে বাবুচি বাজার এলাকার একতা ব্রিকস্ ফিল্ডে গিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। একই সময়ে পুলিশের টিম আত্মগোপনে থাকা ডাকাত বুলেটকে গ্রেফতার করতে অভিযানকালে মহাসড়কের পাশে অর্পিতা ব্রিকস্ ফিল্ডের সামনে ওই হাইয়েস গাড়ির মুখোমুখি হয়। পুলিশ মাইক্রোবাসটি থামতে বললে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে ধাওয়া করে মাইক্রোবাসে থাকা আটজনসহ মূল ডাকাত বুলেটকে আটক করে। পরে তাদের হেফাজতে থাকা পাঁচটি রামদা, দুইটি দেশীয় তৈরি চাইনিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়। অস্ত্রসহ ১১ জনকে আটকের ঘটনায় চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ডাকাতি

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন