Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

১০১ ইয়াবা কারবারির বিরুদ্ধে চার্জশিট

বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার থেকে : | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

গত বছর টেকনাফ হাই স্কুল মাঠে আত্মসমর্পণকারি ১০২ জন ইয়াবা কারবারির বিরুদ্ধে দায়ের করা দুটি মামলায় ১০১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত ১০২ শীর্ষ ইয়াবা কারবারি আত্মসমর্পণ এবং দুই শতাধিক বন্দুকযুদ্ধে নিহত হলেও বন্ধ হয়নি ইয়াবা কারবার। সোমবার (২০ জানুয়ারি) বেলা ১ টার দিকে কক্সবাজারের ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারিক হাকিম তামান্না ফারাহ এর আদালতে পুলিশ এ চার্জশিট জমা দেয়। কক্সবাজারের কোর্ট ইন্সপেক্টর মাহবুবর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। আত্মসমর্পণকারিদের মধ্যে একজনের মৃত্যু হওয়ায় তার নাম বাদ দিয়ে চার্জশিট জমা দেয়া হয়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) টেকনাফ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) এবিএম এস দোহা জানান, গত বছরের ১৬ ফেব্রæয়ারি ১০২ জন ইয়াবা কারবারি আত্মসমর্পণ করে। তাদের মধ্যে কারাগারে থাকা ১০১ জনের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে দায়ের করা দুটি মামলায় পুলিশ আদালতে চার্জশিট জমা দিয়েছে।
কারা হাজতে থাকাকালিন টেকনাফ সাবরাং ইউনিয়নের মুন্ডারডেইল এলাকার ফজল আহমদের ছেলে মোহাম্মদ রাসেলের মৃত্যু হওয়ায় তাকে চার্জশিট থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। আইও আরো জানান, ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন এর ৩৬/১ এর (১০) ধারায় এবং অস্ত্র আইনে পরস্পর যোগসাজশে নিজ নিজ দায়িত্বে অবৈধভাবে ইয়াবা ও অস্ত্র রাখার অভিযোগ আনা হয় আসামিদের বিরুদ্ধে।
উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রæয়ারি টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারীর উপস্থিতিতে কক্সবাজার পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) এর সভাপতিত্বে এক অনুষ্ঠানে ১০২ জন তালিকাভুক্ত ইয়াবা কারবারি আত্মসমর্পণ করে।এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদির আপন ৪ ভাইসহ ঘনিষ্ঠ ৮ আত্মীয় ছিল। অনুষ্ঠান শেষে ওই দিনই দুটি মামলায় আটক দেখিয়ে আত্মসমর্পণকারীদের কক্সবাজার কারাগারে পাঠানো হয়। ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ীর মধ্যে একজন ছাড়া বাকি সবাই টেকনাফের বাসিন্দা।
আত্মসমর্পণের আগে ১০২ জন ইয়াবাকারবারির সাথে রাষ্ট্রের দেয়া কথা অনুযায়ী তাদের জেল থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করার কথা থাকলেও এখনো সে বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কোন সিদ্ধান্ত না পাওয়ায় জেলে থাকা ১০১ জন ইয়াবা কারবারির স্বজনরা উদ্বিগ্ন। এদিকে খবর রটেছে এসব ইয়াবা কারবারির জামিনের ব্যপারে একটি মহল কোটি কোটি টাকার মিশন নিয়ে মাঠে নেমেছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইয়াবা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ