Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

রাবিতে ১৩১ আসন ফাঁকা রেখেই ক্লাস শুরু আজ

রাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২০, ৯:৪২ এএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ১৩১ টি আসন ফাঁকা রেখেই ক্লাস শুরু হচ্ছে আজ মঙ্গলবার। এ বছর নয়টি অনুষদ তিনটি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তি ও বিভাগ পরিবর্তনের সকল প্রক্রিয়া গত ১৫ জানুয়ারি শেষ করে বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন সি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা কমিটির চীফ কো-অর্ডিনেটর ও প্রকৌশল অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো. একরামুল হামিদ।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এ ইউনিটের অধীন কলা, আইন, সামাজিক বিজ্ঞান, চারুকলা অনুষদ, এবং শিক্ষা গবেষণা ইনস্টিটিউটে ৯০টি আসন খালি আছে। সেখানে উর্দু, ফার্সি, সংস্কৃত বিভাগের বেশির ভাগ আসন খালি রয়েছে। সি ইউনিটের অধীন বিজ্ঞান, জীব ও ভূ-বিজ্ঞান, কৃষি ও প্রকৌশল অনুষদে ৪১ টি আসন ফাঁকা রয়েছে। তারমধ্যে কোটার আসন ৩টি। অন্যদিকে বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ও ব্যবসা প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) তে ভর্তি পরীক্ষার মেধা তালিকার ভিত্তিতে সকল আসন পূরণ হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন বি ইউনিটের চিফ কো-অর্ডিনেটর ও ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. এ কে এম শামসুদ্দোহা।
এদিকে মঙ্গলবার সকাল ৯টার মধ্যে ¯œাতক প্রথমবর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের স্ব-স্ব বিভাগে উপস্থিত হয়ে ক্লাসে যোগদানের জন্য নির্দেশ দিয়েছে বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
আইন অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর এম আহসান কবির জানান, রোববার তিন ইউনিটের চিফ কো-অর্ডিনেটর ফাঁকা আসনের ব্যাপারে করণীয় সম্পর্কে বিশ^বিদ্যালয় ভিসি বরাবর আবেদন দিয়েছি। নির্দেশনা পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তিনি আরও জানান, সব আসন পূরণ করতে গেলে অর্ধবছরেও শেষ না হতে পারে। কেননা অপেক্ষাকৃত শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে গেছে। অন্যদিকে আসন ফাঁকা থাকা বিভাগ গুলি পছন্দ না হতেও পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
বিজ্ঞান অনুষদের চিফ কো-অর্ডিনেটর ড. একরামুল হামিদ বলেন, ভর্তির তারিখ বৃদ্ধির জন্য ভিসির নিকট সুপারিশ করেছি। অনুমোদন হলে পরবর্তী অপেক্ষমান তালিক থেকে ভর্তি করানো হবে বলে জানান তিনি।
এর আগে গত বছর ২১ ও ২২ অক্টোবর দু’দিনে তিনটি ইউনিটে স্নাতক সম্মান ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।



 

Show all comments
  • Amir ২১ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:৩৭ এএম says : 0
    ভর্তির তারিখ বৃদ্ধির জন্য ভিসির নিকট সুপারিশ করেছি। অনুমোদন হলে পরবর্তী অপেক্ষমান তালিক থেকে ভর্তি করানো হবে-----------;ভর্তি প্রক্রিয়া ধীরগতিতে হওয়ায় শিক্ষার্থী পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাবি


আরও
আরও পড়ুন