Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

দক্ষ মানব সম্পদ উন্নয়নে ২০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২০, ৮:৩৮ পিএম
  • শিল্প-কারখানার পাশে জলাধার রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • একনেকে ৭ প্রকল্প অনুমোদন

শিল্পকারখানা নির্মাণে জলাধার রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুর্ঘটনা হলে আগুন নেভানোসহ অন্যান্য প্রয়োজনে পানির সংস্থানে এই নির্দেশনা দেন তিনি। একই সঙ্গে বর্ষায় এসব জলাধারে বৃষ্টির পানি ধরে রাখারও কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) এসব নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী এবং একনেকেরও চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

শিল্প কারখানায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকে আরো শক্তিশালী করারও নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এজন্য কেন্দ্রীয়ভাবে বর্জ্য শোধনাগার (সিইটিপি) স্থাপনের কথা বলেছেন তিনি। উন্নয়ন প্রকল্পের সেবা যাতে একদিনও বিলল্প না হয় এ উদ্দেশে প্রকল্পের কাজ শেষ হওয়ার আগে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি এবং প্রশিক্ষিত জনবল প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কারিগরি শিক্ষায় দক্ষ প্রশিক্ষকের প্রয়োজনে তাদের বিদেশে প্রশিক্ষণেরও ব্যবস্থা করার কথা বলেছেন তিনি।

সারা দেশে আরো তিন শতাধিক টেকনিক্যাল স্কুল এবং কলেজ প্রতিষ্ঠা প্রকল্প প্রসঙ্গে জনবলের প্রতি এই গুরুত্বারোপ করেন তিনি। ‘৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপন’ নামের এ প্রকল্পের উদ্দেশ্য, কর্মসংস্থান সৃস্টি, দারিদ্র্য হ্রাস ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলার মাধ্যমে দক্ষ জনবলের অভ্যন্তরীন চাহিদা মেটাানোর পাশাপাশি বিদেশে দক্ষ জনশক্তি রপ্তানির মাধ্যমে প্রবাসী আয় বাড়ানো। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ২০ হাজার ৫২৬ কোটি টাকা। আগামী চার বছরে এই প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শেষ করার কথা রয়েছে।

ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাসহ অন্যান্য বিষয় তুলে ধরেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, বৈঠকে সাতটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে একনেক। এসব প্রকল্পের অনুমিত ব্যয় ধরা হয়েছে ২২ হাজার ৪৬ কোটি টাকা। এই অর্থের মধ্যে ২৮০ কোটি টাকার ভারতীয় ঋণ। বাকি অর্থ সরকারের নিজস্ব যোগান।

অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলো হচ্ছে, বিসিক শিল্প পার্ক সিরাজগঞ্জ প্রকল্পের সংশোধনী। মোট ব্যয় এখন ৭১৯ টাকারও বেশি। ২০২১ সালের জুনে পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে। মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের ভবন নির্মাণ ও সক্ষমতা বৃদ্ধি প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৪৩ কোটি টাকা। কিশোরগঞ্জ জেলায় হাওর এলাকায় নির্বাচিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন প্রকল্প। এ প্রকল্পে ব্যয় অনুমোদন করা হয়েছে ৩৯৩ কোটি টাকা। ২৩৩ কোটি ৯২ লাখ টাকা ব্যয়ে শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং নার্সিং কলেজ স্থাপন প্রকল্পের সংশোধনী। প্রকল্পটির মহৃল ব্যয় ছিল ৭১৭ কোটি টাকা। সময়ের সঙ্গে ব্যয় বেড়েছে অতিরিক্ত ২৩৪ কোটি টাকা। গত বছরের জুনে শেষ হওয়ার কথা ছিল প্রকল্পটি। এখন শেষ হবে ২০২১ সালের জুনে। ৩৩৯ কোটি ৫৮ লাখ টাকা ব্যয়ে সাতক্ষীরার বেতগ্রাম-তালা-পাইকগাছা-কয়রা সড়ক যথাযথ মানে উন্নীতকরণ প্রকল্প। ৩৬৯ কোটি ৪৩ লাখ টাকা ব্যয়ে লক্ষ্মীপুর শহর সংযোগ সড়ক ও লক্ষ্মীপুর আলেকজান্ডার-সোনাপুর-মাইজদী মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্প ও ৮৪৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে ভোলা পরান তালুকদার হাট চরফ্যাশন আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্প।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: একনেক

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ