Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৮ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

হতাশা কাটানোর পরামর্শ দিলেন দীপিকা

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২০, ৪:২০ পিএম

‘মানুষকে বুঝতে হবে হতাশা ও উদ্বেগ অন্য যেকোনো অসুখের মতোই এবং চিকিৎসার মাধ্যমে এসব রোগ সারিয়ে তোলা সম্ভব।’ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) বার্ষিক সভা ২০২০-এর প্রথম সন্ধ্যায় বার্ষিক ক্রিস্টাল পুরস্কার গ্রহণের সময় অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন এসব কথা বলেছেন। সম্প্রতি মানসিক স্বাস্থ্যসচেতনতা বৃদ্ধিতে তার অবদানের জন্য এ পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। এ সময় দীপিকা তার নিজের জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে এ কাজে উৎসাহ পেয়েছেন বলে জানান।

পুরস্কার গ্রহণ অনুষ্ঠানে হতাশা ও মানসিক অসুস্থতার সঙ্গে নিজের সংগ্রামের কথা স্মরণ করে এ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার ভালোবাসা ও ঘৃণার সম্পর্ক আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে। আমি ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্দেশে বলতে চাই, আপনারা একা নন।’ এ সময় বিশ্ব অর্থনীতিতে হতাশা ও মানসিক অসুস্থতার প্রভাব ১ ট্রিলিয়ন ডলারেরও অধিক বলে তিনি জানান।

নিজের অভিজ্ঞতা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে দীপিকা ভারতের স্কুলগুলোয় সচেতনতামূলক কর্মসূচি প্রদানসহ বিনা মূল্যে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের চিকিৎসা, চিকিৎসাশিক্ষা কার্যক্রম, জনসচেতনতা প্রচার ও আরো বেশকিছু কাজের জন্য ভিত্তি স্থাপন করেন। ‘পুরস্কারটি গ্রহণ করতে আমার যে সময় লেগেছে, এ সময়ের মধ্যে আত্মহত্যার কারণে বিশ্ব আরেকজনকে হারিয়েছে।’ দীপিকা বলেন।

‘হতাশা সাধারণ বিষয় হলেও এটি মারাত্মক। এটা সবারই বোঝা দরকার যে অন্যান্য অসুস্থতার মতোই হতাশা থেকে আরোগ্য লাভের চিকিৎসা রয়েছে। এ অসুস্থতার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, এটা আমার জীবনকে সাজিয়ে তুলতে ও আমাকে হাসতে শিখিয়েছে’— দীপিকা মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য যে ভিত্তি স্থাপন করেছেন, সে সম্পর্কে বলতে গিয়ে এসব কথা বলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বলিউড

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন