Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬, ০৮ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

খালেদার বিশেষ আবেদন কার কাছে, প্রশ্ন কাদেরের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০২০, ৬:৪১ পিএম

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে তার পরিবারের বিশেষ আবেদনের কথা বলছেন, তারা আসলে আবেদন কার কাছে করবেন? আদালত নাকি, সরকারের কাছে?

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রাজধানীর ব্রাক সেন্টারে ব্র্যাকের আয়োজনে নারী গাড়িচালকদের প্রশিক্ষণ পরবর্তী সার্টিফিকেট বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

শুক্রবার খালেদা জিয়ার সঙ্গে হাসপাতালে দেখা করে তার পরিবার। বেরিয়ে এসে সাবেক প্রধানমন্ত্রীর মুক্তির বিষয়ে বিশেষ আবেদন করা হবে বলে জানায় তার পরিবার। খালেদা জিয়ার পরিবার তার মুক্তির জন্য বিশেষ আবেদন করলে সরকারের অবস্থান কী হবে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, বেগম জিয়া কিন্তু এখন আদালতের এখতিয়ারে। এখানে সহমর্মিতা-সহানুভূতির বিষয় নয়, এটা লিগ্যাল ব্যাপার।

খালেদা জিয়ার পরিবার সরকারের কোনো সহমর্মিতা পাবেন কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, এখানে সহমর্মিতা সহানুভূতির বিষয় নয়। এটা লিগ্যাল ব্যাপার। আসলে সরকারের পক্ষ থেকে সহমর্মিতা বা সহানুভূতির ঘাটতি তো নাই, খালেদা জিয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু সহানুভূতির কথা বলে তো আমরা আদালতকে প্রভাবিত করতে পারি না সহমর্মিতা দিয়ে আইনকে প্রভাবিত করাও যায় না।

সিটি নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার নিয়ে সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের মন্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সদ্য সমাপ্ত চট্টগ্রাম উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। আবার বগুড়ার দুপচাঁচিয়া পৌরসভায় ইভিএম পদ্ধতিতে বিএনপির প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। যদি ইভিএমে কারচুপি করার সুযোগ থাকে এবং নির্বাচন নিয়ে কোনো জালিয়াতি হয় তাহলে চট্টগ্রাম ও উপ-নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম কেন? সরকারের যদি এখানে খারাপ কোনো উদ্দেশ্য থাকত তাহলে তো নির্বাচনে উপস্থিতির সংখ্যা বেড়ে যেতো! নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে এমন অভিযোগ করা যুক্তিহীন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওবায়দুল কাদের

৩১ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন