Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে তারা এখন মুসলমান

ছাতক (সুনামগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

সুনামগঞ্জের ছাতকে স্বামীর পথ অনুসরণ করে দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করলেন স্ত্রী। আদালতে ধর্মান্তর সংক্রান্ত হলফনামার আলোকে স্ত্রী দুই সন্তানসহ গত শুক্রবার বিকেলে হাফেজ মাওলানা আবুল ফজল মোহাম্মদ ত্বোহার কাছে পবিত্র কালেমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। এর প্রায় এক মাস আগে সেলুন ব্যবসায়ী স্বামী ইসলাম গ্রহণ করেন।

ইসলাম গ্রহণের পর এক লাখ এক টাকা দেনমোহর ধার্য করে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে আসা দু’জনের বিয়ে পড়িয়ে দেয়া হয়। একই পরিবারের চার সদস্য শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা যায়, সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার বেহেলী ইউনিয়নের রহিমপুর গুচ্ছগ্রামের মনোরঞ্জন দাসের পুত্র, বর্তমানে ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ কলেজ সংলগ্ন এলাকার সেলুন ব্যবসায়ী অনিক দাস মোহাম্মদ আবদুল্লাহ নামে গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেলাল উদ্দিনের আদালতে ধর্মান্তর সংক্রান্ত হলফনামা সম্পাদন করে স্ত্রী ও সন্তানদের রেখে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।
স্বামী ইসলাম গ্রহণের প্রায় একমাস পর গত বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জ আদালতে ধর্মান্তর হলফনামা সম্পাদনের মাধ্যমে স্ত্রী শ্রীমতি বালা দাস নামের স্থলে মোছা. রহিমা জান্নাত হামিদা (২৫), ৬ বছরের কন্যা শিশু নন্দিনী নামের স্থলে আয়েশা জান্নাত ও দেড় বছরের পুত্র মনি অনুরাগ নামের স্থলে মো. রায়হান আহমদ রাহী নাম পরিবর্তন করে একসাথে পরিবারের তিন সদস্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

গত শুক্রবার জুমার নামাযের পর তারা গোবিন্দগঞ্জ আবদুল হক স্মৃতি অনার্স কলেজের প্রিন্সিপাল সিরাজুল ইসলাম জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফেজ মাওলানা আবুল ফজল মোহাম্মদ ত্বোহার কাছে পবিত্র কালেমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। এ নিয়ে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে একই পরিবারের চার সদস্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।
পরে ইসলামি শরীয়ত অনুযায়ী মোহাম্মদ আবদুল্লাহকে রহিমা জান্নাত হামিদার সাথে এক লাখ এক টাকা দেনমোহরের মাধ্যমে গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের কাজী মাওলানা আবদুস সামাদ তাদের বিয়ের কাবিননামা রেজিস্ট্রি করে দেন। বিয়েতে ব্যবসায়ী শেখ আবদুল বাছিত উভয়পক্ষের উকিল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বরের পক্ষে মুজিবুর রহমান ও আবদুল করিম এবং কনের পক্ষে আবুল লেইছ কাহার ও আবদুস সামাদকে স্বাক্ষী হিসেবে মনোনীত করা হয়।

এ সময় অ্যাডভোকেট আবুল কালাম কেনু মিয়া, ডাক্তার একেএম আবদুল্লাহ, সাবেক ব্যাংকার এসএম তৈয়ব আলী, সাবেক মেম্বার সমছুল ইসলাম, মাওলানা এমএ মতিন, মাওলানা কামরুজ্জামান, ছাতক প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রনি, ব্যবসায়ী সদরুল আমিন সোহান, হাফেজ রফিকুল ইসলাম তালুকদার, ফয়েজ আহমদ, কাজি ইমদাদ, এইচ এম বাছিতসহ মুসল্লিরা উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • Mohammad Kajal ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৮ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ
    Total Reply(0) Reply
  • Ashikur Rahman ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
    হিন্দু খ্রিস্টান বৌদ্ধ বিভিন্ন ধর্মের লোকেরা নিজের স্ব-ইচ্ছায় ইসলাম ধর্ম গ্রহণের মাধ্যমে প্রমাণ করে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ধর্ম ইসলাম
    Total Reply(0) Reply
  • Mufti Amir Hamza ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০১ এএম says : 0
    কোন একদিন এদেশের আকাশে কালিমার পতাকা উড়বে সেদিনের সবাই খোদায়ী বিধান পেয়ে দুঃখ বেদনা ভুলবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Shifa Mariya ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০১ এএম says : 0
    মাশাল্লাহ। ইসলাম শান্তির ধর্ম। আলহামদুলিল্লাহ.... আল্লাহ তায়ালার কাছে অনেক অনেক শুকরিয়া জানাই যে... এত সুন্দর একটা ধর্মে জন্মগ্রহণ করার জন্য। শ্রেষ্ঠ মানব মুহাম্মদ (সা:) কে নবি হিসেবে পাওয়ার জন্য।
    Total Reply(0) Reply
  • Mizanur Rahman Azhari ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০১ এএম says : 0
    মুসলমান হওয়ার এই প্রবণতা বহাল থাকতে বর্তমান শতকের শেষে মুসলিমরা সংখ্যায় ছাড়িয়ে যাবে খ্রিস্টানদের। বলা হয়েছে, ইসলাম দুনিয়ায় সবচেয়ে দ্রুত বাড়তে থাকা ধর্ম
    Total Reply(0) Reply
  • Launch Journey in Bangladesh ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০৩ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ্, এভাবে সবাই একদিন পবিত্র ইসলামের ছোয়া পাবে, নাজাত পাবে
    Total Reply(0) Reply
  • ** হতদরিদ্র দীনমজুর কহে ** ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:২০ এএম says : 0
    ইসলামের সুশীতল ছায়া তলে নওমুসলিমরা এসেছে আল্লাহ তুমি এদের হিফাজত কর।।
    Total Reply(0) Reply
  • mashud ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:০১ এএম says : 0
    alhamdhulillah.
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Kowaj Ali khan ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:২৫ এএম says : 0
    মুসলমান যদি ইসলাম হইতে পারিতেন তবে আজকে পৃথিবীতে ইসলামই হইতো একমাত্র শ্বাসন ব্যবস্থা। আজকের মুসলমান ইসলাম নাই। এছাড়া নামাজ শুদ্ধ নাই। এখনকার স্কলার সব কটি ভন্ড। ওরাই হচ্ছে মুসলমান এবং ইসলামের বড় শত্রু। এখন ভন্ডরা একামত অরধেক করিয়াছে। আর কথায় কথায় বলিবে সৌদি আরব এই সেই। সৌদি আরব ইসলাম নয়। ইসলাম কোরান এবং সুন্নাহ। সবাই নামাজ শিক্ষা পড়িবেন। বাংলাদেশে ছিলো সত্যিকারের ইসলাম। এখন মূর্খ সকল বাহির হইছে, যায় শিক্ষা অর্জন করিতে দেশ বিদেশ আর আয় মূর্খ হইয়া। সেই দিন দেখিলাম সুদাইসির নামাজ ১৫ পারসেন্ট নামাজ শুদ্ধ নাই। ওখান হইতে শিখবার কি আছে?
    Total Reply(0) Reply
  • salman ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:৪৩ এএম says : 0
    MashaAllah, Alhamdulillah, ALLAH kobul korun tader ai Secrifise ...ameen
    Total Reply(0) Reply
  • Montahi Hossain ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:১৯ পিএম says : 0
    MashaAllah, Alhamdulillah,
    Total Reply(0) Reply
  • jack ali ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৪ পিএম says : 0
    May Allah [SWT] accept them and grant them Jannatul Firdous inshaaAllah.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুসলমান

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন