Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ০৪ রজব ১৪৪১ হিজরী

নারী লিগেও শিরোপা চায় বসুন্ধরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:৪০ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) গেল বছর শিরোপা জিতেছে বসুন্ধরা কিংস। এবার মৌসুম সূচক টুর্নামেন্ট ফেডারেশন কাপেও চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। এ ধারাবাহিকতায় নারী ফুটবল লিগ শিরোপাও জিততে চায় কর্পোরেট দলটি। লক্ষ্যপূরণে

আসন্ন নারী লিগে সেরা দলই গড়েছে বসুন্ধরা। রোববার ছিল নারী লিগের দলবদলের শেষ দিন। এদিন ঢাকঢোল বাজনার তালে তালে ব্যান্ডপার্টি নিয়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে আসে বসুন্ধরা কিংস। দলের পক্ষে দলবদল কার্যক্রমে অংশ নেন সাবিনা খাতুন, মারিয়া মান্ডারা। দলবদল শেষে ক্লাবের সভাপতি ইমরুল হাসান বলেন, ‘নারী লিগকে সামনে রেখে এবার আমরা শক্তিশালী দল গঠন করার চেষ্টা করেছি। আমাদের লক্ষ্য লিগ শিরোপা জয়। আমরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যেই লিগে অংশ নেব। তবে অন্যরাও শক্তিশালী ভাল দল গঠন করেছে।’

বিপিএলের ক্লাবগুলোর মধ্যে শুধুমাত্র বসুন্ধরা কিংসই নারী লিগে অংশ নিচ্ছে। দীর্ঘ প্রায় ছয় বছর পর মাঠে গড়াচ্ছে এই লিগ। তবে লিগ নিয়ে বেশ আশাবাদী বসুন্ধরার সভাপতি ইমরুল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বিপিএলের অন্যান্য ক্লাব নারী লিগে অংশ নিলে তা আরো আকর্ষণীয় ও জমজমাট হতো। আশা করি ভবিষ্যতে বাফুফে তাদেরকে এই লিগে নিয়ে আসবে।’ তিনি যোগ করেন, ‘গত কয়েক বছরে ফুটবলে মেয়েরাই ভাল ফলাফল উপহার দিয়েছে। নিয়মিত লিগ হলে তারা আরো ভাল করতে পারবে। সেই সঙ্গে এএফসি টুর্নামেন্টে কোন স্লট থাকলে সেখানে বসুন্ধরা কিংসই খেলবে।’ বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলার ২ থেকে ৫ লাখ টাকা পারিশ্রমিক পাচ্ছেন। দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন পাচ্ছেন সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক।

বসুন্ধরার পক্ষ থেকে সব ধরণের সুবিধাই দেওয়া হচ্ছে মেয়েদের। কোচিং স্টাফসহ আরো অনেক সুবিধা রয়েছে ক্লাবটিতে। তবে বিপিএলের অন্য ক্লাবগুলো লিগে না আসায় হতাশ মারিয়া মান্ডা। তিনি বলেন, ‘এখনো আমাদের ৩০/৩৫ জন ফুটবলার দল পায়নি। প্রিমিয়ার লিগের দলগুলো আসলে এই অবস্থা হতো না।’

অধিনায়ক সাবিনা বলেন, ‘বসুন্ধরা কিংসকে ধন্যবাদ দারুণ একটা দল গঠন করার জন্য। আশা করি, এই দল নিয়ে আমরা ক্লাবকে লিগ শিরোপা উপহার দিতে পারবো।’ দলের কোচ শরিফা অদিতি কথায়, ‘আমরা শক্তিশালী দল গঠন করেছি। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই খেলব।’

দলবদল অনুষ্ঠানে বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘বিপিএলের ক্লাবগুলোকে বার বার অনুরোধ করেও নারী লিগে অংশ নেয়ার ব্যাপারে আমরা কোন সাড়া পাইনি। যে কারণে বসুন্ধরা ছাড়া বিপিএলের অন্য দলগুলোকে দেখা যাবেনা এই লিগে। আমরা বাধ্য হয়েছি বিপিএলের বাইরের দলগুলোকে নিয়ে লিগ করতে।’

এবারের নারী লিগে মোট আটটি ক্লাব অংশ নিচ্ছে। এরা হলো- বসুন্ধরা কিংস, এসি উত্তরবঙ্গ, বেগম আনোয়ারা স্পোর্টিং ক্লাব, নাসরিন স্পোর্টিং ক্লাব, কাচারিপাড়া একাদশ, কুমিল্লা ইউনাইটেড, স্বপ্নচূড়া অ্যান্ড আক্কেলপুর ফুটবল একাডেমি ও স্পার্টান এমকে গ্যালাকটিকো সিলেট এফসি। ৩১ জানুয়ারি লিগের খেলা শুরু হওয়ার কথা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নারী ফুটবল লিগ
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ