Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

এলো সিগারেট-চকলেট

ঘোষণায় মাশরুম-সুইট কর্ন

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

চট্টগ্রাম বন্দরে এবার মাশরুম ও সুইট কর্নের ঘোষণা দিয়ে আনা হয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের আমদানি নিষিদ্ধ সিগারেট ও মূল্যবান চকলেট। গতকাল রোববার চট্টগ্রাম বন্দরে মিথ্যা ঘোষণায় আনা দুই কন্টেইনার পণ্য জব্দ করেছে কাস্টম কর্তৃপক্ষ। এ মিথ্যা ঘোষণার মাধ্যমে বড় অঙ্কের শুল্ক ফাঁকির চেষ্টা হচ্ছিল। আর এর মাধ্যমে অর্থপাচারের ঘটনা ঘটেছে বলেও সন্দেহ করছেন কাস্টমস কর্মকর্তারা।

কন্টেইনার দু’টির কায়িক পরীক্ষার পর বিদেশি ব্র্যান্ডের সিগারেট এবং চকলেট পাবার কথা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম কাস্টমসের সহকারী কমিশনার সানজিদা অনুসূয়া। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কন্টেইনারে প্রাপ্ত মালামালের হিসাব-নিকাশ চলছিল।

কাস্টম কর্মকর্তারা জানান, সংযুক্ত আরব-আমিরাত থেকে মাশরুম আনার ঘোষণা দিয়ে এলসি খুলেছিল নগরীর আগ্রাবাদের বাংলা ভিনা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। নগরীর আগ্রাবাদের খায়ের ব্রাদার্স নামে একটি প্রতিষ্ঠান সিএন্ডএফ এজেন্ট হিসেবে গত ৫ জানুয়ারি বন্দরে আসা কন্টেইনার থেকে পণ্য খালাসের জন্য কাস্টমসে ঋণপত্র দাখিল করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কাস্টমসের এআরআই শাখা ওই কন্টেইনার থেকে পণ্য খালাস স্থগিত ঘোষণা করে।

কাস্টমস কর্মকর্তা সানজিদা অনুসূয়া সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, কন্টেইনারটি খুলে কায়িক পরীক্ষা করা হয়। এতে মাশরুমের বদলে চার ব্র্যান্ডের সিগারেট পাওয়া গেছে। ব্র্যান্ডগুলো হচ্ছে- ইজি, থ্রি জিরো থ্রি, বø্যাক এবং মন্ড। ৭৮১ কার্টনে মোট এক কোটি ৪০ লাখ ২০ হাজার সিগারেট পাওয়া গেছে।

এদিকে তুরস্ক থেকে সুইট কর্ন আনার ঘোষণা দিয়ে ঋণপত্র খুলেছিল ঢাকার মতিঝিলের সামিট ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল। নগরীর আগ্রাবাদের সুপারসনিক ফ্রেইট ফরোয়াডার্স লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠান সিএন্ডএফ এজেন্ট হিসেবে বন্দরে আসা সেই কন্টেইনার খালাসের দায়িত্ব পায়। তাতেও কায়িক পরীক্ষার সময় সেখানে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিদেশি চকলেট পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম কাস্টমসের সহকারী কমিশনার সানজিদা অনুসূয়া বলেন, দুই কন্টেইনার ভর্তি বিপুল পরিমাণ সিগারেট ও চকলেট আছে। সিগারেটের গণনা শেষ হয়েছে, চকলেটের চলছে। সিগারেট আমদানি নিষিদ্ধ। আর চকলেটগুলোর দাম এবং শুল্ক বেশি। কম দামের সুইট কর্ন দেখিয়ে বেশি দামের চকলেট আনা হয়েছে শুল্ক ফাঁকির উদ্দেশে।



 

Show all comments
  • Joe John ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৮ এএম says : 0
    ata smugglers der jonno kisu na dosh bar anse akbar dora khaise . ara a to z key bribe dey dey fu...dam care about it Bangladesh is the most corrupted country .
    Total Reply(0) Reply
  • Zaakirul Islam Zaakir ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
    এখন ভাগাভাগি করে নিলেই তো হয়। প্রচার করা কি দরকার ছিল???
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Afsaruddin ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
    this detection is a tip of the iceberg , there are much more than this. thank you for catching them. good luck
    Total Reply(0) Reply
  • Shahadat Hossain Fakhrul ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
    সকল সম্পদ আগে জব্দ করা হোক ওগুলো মাসরুম না মাদকের ভিন্নরুপ নিরিক্ষন পরে।
    Total Reply(0) Reply
  • Shahadat Hossain Fakhrul ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
    সকল সম্পদ আগে জব্দ করা হোক ওগুলো মাসরুম না মাদকের ভিন্নরুপ নিরিক্ষন পরে।
    Total Reply(0) Reply
  • অ বা ক ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৯ এএম says : 0
    ওইগুলা একত্রে কোথায় পোড়ানো হবে জানাবেন প্লিজ
    Total Reply(0) Reply
  • Rehena Aktar ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
    এই জাতীয় আমদানি কারকের বড়ধরনের সাজা হওয়া দরকার।
    Total Reply(0) Reply
  • Monjur Rahman ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
    এটা মাঝে মাঝে জনগণ কে জানানো হয় যে আমরা সবসময়ই সজাগ আছি। কিন্তু বাস্তবে ব্যতিক্রম । আমি সবসময় আমাদের সাংবাদিক ভাইদের ধন্যবাদ দেই এজন্য যে এদের জন্যই আমরা এই সুখকর খবর পেয়ে থাকি।
    Total Reply(0) Reply
  • তানভীর আহমেদ ২৭ জানুয়ারি, ২০২০, ১:০০ এএম says : 0
    ৪ টাকা করে কোন দেশের সিগারেট? দেশীটাই তো ১০/১২ টাকা. নাকি অর্ধেক আগেই খেয়ে ফেলছেন?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ