Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ১৭ সফর ১৪৪৩ হিজরী

দুপচাঁচিয়ায় মারপিটের ঘটনায় আহত গৃহবধূর মৃত্যু

প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) উপজেলা সংবাদদাতা

দুপচাঁচিয়া উপজেলার বড় কোলগ্রামের মারপিটের ঘটনায় আহত গৃহবধূ মিনা বেগম (৩৬) বৃহস্পতিবার রাতে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছে। জানা গেছে, ঘটনার দিন গত ২৭ জুন সন্ধ্যায় উপজেলার চামরুল ইউনিয়নের বড় কোলগ্রামের তোজাম্মেল হোসেনের বাড়িতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কতিপয় ব্যক্তি অনাধিকার পূর্বক প্রবেশ করে। এক পর্যায় গৃহকর্তাকে গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় তার স্ত্রী মিনা বেগম তাদেরকে বাধা দিলে তর্ক বিতর্কের সৃষ্টি হয়। উক্ত ব্যক্তিরা ক্ষিপ্ত হয়ে গৃহবধূ মিনা বেগমকে টানা হেচড়া সহ মারপিট করে জখম করে। তার চিৎকারে বাড়ি সহ আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। রাতেই আশঙ্কা জনক অবস্থায় মিনা বেগমকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এ সংক্রান্তে তার মেয়ে তাজমা খাতুন পরের দিন গত মঙ্গলবার বাদি হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত আরো ২ থেকে ৩ জনের নামে থানায় মামলা দায়ের করে। পুলিশ মামলার এজাহারভুক্ত আসামি উপজেলার কোলগ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের পুত্র মঞ্জুর হাসান, কামরুজ্জামানের পুত্র সাবলু ও ছোট কোলগ্রামের আজিমুদ্দিন ওরফে হুলাইয়ের পুত্র আব্দুস সামাদকে আটক করে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করে। এ দিকে প্রায় ৩ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে মিনা বেগম গত বৃহস্পতিবার রাতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। থানার ওসি নজরুল ইসলাম মারপিট মামলায় আহত গৃহবধূ মিনা বেগমের চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুপচাঁচিয়ায় মারপিটের ঘটনায় আহত গৃহবধূর মৃত্যু
আরও পড়ুন