Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২২ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

ব্যয়বহুল শহরে যুক্ত হলো কক্সবাজার

সরকারি চাকরিজীবীদের সুবিধা বাড়ল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

পর্যটন শহর কক্সবাজারকে ব্যয়বহুল শহর হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার। এর ফলে ওই এলাকার সরকারি চাকরিজীবীদের সরকারি বাড়িভাড়াসহ বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা বাড়বে। গতকাল সোমবার প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।
ঢাকাসহ দেশের ব্যয়বহুল এলাকাগুলোয় সরকারি চাকরিজীবীরা ম‚ল বেতনের ৫০ শতাংশ বাড়িভাড়া পেয়ে থাকেন। এখন কক্সবাজারের চাকরিজীবীরাও তা পাবেন। বর্তমানে এই হার ৪৫ শতাংশ। এ ছাড়া টিএ-ডিএসহ অন্যান্য সুবিধাও বাড়বে। কক্সবাজার পৌর এলাকাকে ব্যয়বহুল হিসেবে ঘোষণা করে গতকাল সোমবার প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এতে বলা হয়, কক্সবাজার শহর বা পৌর এলাকার নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের ম‚ল্যবৃদ্ধিসহ বাড়িভাড়া, যানবাহনের ভাড়া, খাদ্য, পোশাকসামগ্রীসহ অন্যান্য ভোগ্যপণ্যের দাম বিবেচনায় কক্সবাজার পৌর এলাকাকে ব্যয়বহুল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

কক্সবাজারের ডিসি কামাল হোসেন ইনকিলাবকে বলেন, কয়েক বছরের মধ্যে কক্সবাজারের বাড়িভাড়া প্রায় দ্বিগুণ হয়ে হয়েছে। অন্যান্য খরচও বেড়েছে। এ জন্যই প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। তা সরকার বস্তবায়ন করেছে।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গত জেলা প্রশাসক সম্মেলনে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসকের (ডিসি) দেওয়া প্রস্তাবের ভিত্তিতেই মূলত এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ওই সম্মেলনে কক্সবাজারের ডিসি বলেছিলেন, বাস্তুচ্যুত হয়ে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গারা কক্সবাজারের আসার পর সেখানে দেশি-বিদেশি অসংখ্য বেসরকারি সংস্থা কাজ শুরু করে। এ ছাড়াও বিভিন্ন সংস্থা সেখানে কাজ করছে। এর ফলে কক্সবাজারে থাকা খাওয়ার খরচ বেড়ে গেছে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর আর্থিক চাপ পড়ছে। এ বিবেচনায় কক্সবাজার শহরকে ব্যয়বহুল শহর ঘোষণার প্রস্তাব করেন তিনি। তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে নীতিগত সম্মতি দেন। পরে অন্যান্য প্রক্রিয়া শেষ করে এখন প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে। এখন অর্থ বিভাগ আর্থিক বিষয়গুলো নির্ধারণ করবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, এখন দেশের অন্যান্য ব্যয়বহুল এলাকার সঙ্গে মিল রেখে ওই এলাকার সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য বাড়িভাড়াসহ অন্য বিষয়গুলো ঠিক করা হবে। বর্তমানে দেশের সাতটি বিভাগীয় শহর ছাড়াও কয়েকটি এলাকা সরকারি হিসাবে ব্যয়বহুল। সাত বিভাগ হলো ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, সিলেট, বরিশাল ও রংপুর। ময়মনসিংহ বিভাগ হলেও এখনো ব্যয়বহুল শহর হিসেবে ঘোষণা হয়নি। এ ছাড়া ঢাকার পার্শ্ববর্তী নারায়ণগঞ্জ জেলা, গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকা এবং সাভার পৌর এলাকাকে সরকারি হিসাবে ব্যয়বহুল এলাকা।



 

Show all comments
  • গোলাম কাদের ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:০১ এএম says : 0
    সাধারণ মানুষের কি হবে ?
    Total Reply(0) Reply
  • আবেদ খান ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:০১ এএম says : 0
    বাংলাদেশের কোথাও কোন নিয়ম নীতি নেই
    Total Reply(0) Reply
  • ইমরান ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:০২ এএম says : 0
    এটাকে সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Abul Kalam ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:০০ এএম says : 0
    কারন তারাই মানুষ। আর অধিক জনসংখ্যার এই দেশ এ বেসরকারি চাকুরীগুলোতে চলে রেগিং। মানুষিক অত্যাচার এত বেশি যে মানুষ দেশের বাইরে কামলা দিলেও দেশ এ বেসরকারি চাকুরী করতে চায় না। এগুলো দেখার কেউ নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • টয়া ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:০৩ এএম says : 0
    সাধারণ মানুষের জন্য কোথাও শান্তি নেই
    Total Reply(0) Reply
  • জাবেদ ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৩:০৩ এএম says : 0
    পুরো দেশটাই এখন ব্যয়বহুল হয়ে গেছে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজার

৫ জানুয়ারি, ২০২০
১৭ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ