Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ০৪ রজব ১৪৪১ হিজরী

ঠুনকো অযুহাতে প্রথম দফা পেছাল বিপিএল!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:৫২ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) মাঠে গড়ানোর কথা ছিল আজ থেকে। কিন্তু তা আর হচ্ছে না। শুরুর আগেই একদফা পেছাল বিপিএলের নতুন মৌসুমের খেলা! লিগ পেছানোর কারণ হিসেবে বাফুফে ধোঁয়া তুলেছে আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও ঢাকা আবাহনী লিমিটেডের এএফসি কাপের প্লে অফ ম্যাচ খেলার। এ দু’টি কারণেই দেশের ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা দু’সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছে বিপিএল। নতুন দিনক্ষণ অনুযায়ী আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে ঘরোয়া ফুটবলের আকর্ষণীয় এই লিগের খেলা। বুধবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে অনুষ্ঠিত পেশাদার লিগ কমিটির সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এমনিতেই বিপিএলে সেশনজট লেগেই আছে। ৬ মাসের লিগ প্রতি বছরই শেষ হতে সময় নেয় ৮/৯ মাস। লিগের মাঝপথে নানা অজুহাতে খেলা বন্ধ রাখে বাফুফে। এবার আসর মাঠে গড়ানোর আগেই ঠুনকো অযুহাতে লিগ পেছানো হয়েছে বলে মনে করছেন ফুটবলবোদ্ধারা। এ প্রসঙ্গে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আবদুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন। নির্বাচনের সময় লিগ আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়া কঠিন। এছাড়া ৫ ফেব্রæয়ারি আবাহনী লিমিটেড এএফসি কাপের প্লে অফ ম্যাচ খেলবে ঢাকায়। এএফসির নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচের তিন দিন আগে ভেন্যু ম্যাচ কমিশনারকে বুঝিয়ে দিতে হবে। ক্লাবগুলোর সঙ্গে আলোচনা ও সামগ্রিক বিষয় বিশ্লেষণ করেই আমরা ১৩ ফেব্রুয়ারি লিগ শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ’

লিগ কমিটির এ সভায় বিদেশি খেলোয়াড়দের কোটা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হয়েছে। গত মৌসুমে এক ক্লাবের পক্ষে পাঁচজন বিদেশি রেজিস্ট্রেশন করতে পেরেছিল। যাদের মধ্যে চার জন করে ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন। এবার ক্লাবগুলোর দাবির প্রেক্ষিতে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। পাঁচ জন বিদেশির সবাই খেলতে পারবেন। তবে প্রথম একাদশে চারজনই খেলবেন। পঞ্চম বিদেশি বদলি হিসেবে নামবেন আরেক বিদেশির জায়গায়। পঞ্চম বিদেশি ফুটবলার যদি এশিয়ান হন তাহলে তাকে এশিয়ান খেলোয়াড়ের বদলি হিসেবে নামাতে হবে। এই সিদ্ধান্তে হতবাক হয়েছেন অনেকেই। কারণ সম্প্রতি জাতীয় দলের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে ঘরোয়া ফুটবলে বিদেশি ফুটবলার কোটা আধিক্য নিয়ে সমালোচনা করেছেন। অথচ বাফুফে গেল উল্টোপথে। লিগ কমিটির চেয়ারম্যান অবশ্য কোচের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে বলেন, ‘স্থানীয় ফুটবলারদের প্রতিদ্বদ্বিতা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই জায়গা করে নিতে হবে। ঘরোয়া পর্যায়ে নিজের জায়গা না করতে পারলে আন্তর্জাতিক ম্যাচে কিভাবে আরেকজন বিদেশির বিরুদ্ধে খেলবে স্থানীয়রা?’

এদিকে আসন্ন বিপিএলে নতুন ভেন্যু হিসেবে যোগ হয়েছে কুমিল্লা জেলা স্টেডিয়াম। ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব কুমিল্লাকে নিজেদের হোম ভেন্যু হিসেবে বেছে নিয়েছে। গত আসরের নোয়াখালী ভেন্যুর দুই স্বাগতিক নোফেল স্পোর্টিং ক্লাব ও টিম বিজেএমসি অবনমনে যাওয়ায় এবার এই ভেন্যুটি বাতিল হয়েছে। তবে ফের চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামকে নিজেদের ভেন্যু করেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। লিগের সর্বশেষ আসরের মতো এবারো মুক্তিযোদ্ধার ভেন্যু গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম, সাইফ স্পোর্টিং ও আরামবাগের ময়মনসিংহের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম, বসুন্ধরা কিংসের নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়াম, ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সিলেট জেলা স্টেডিয়াম হোম ভেন্যু হিসেবে থাকছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ